বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Punjab Assembly Election 2022 : বিজেপির সঙ্গে আসন সমঝোতা অমরিন্দের! ক্যাপ্টেন পেলেন ক'টি আসন?

Punjab Assembly Election 2022 : বিজেপির সঙ্গে আসন সমঝোতা অমরিন্দের! ক্যাপ্টেন পেলেন ক'টি আসন?

দিল্লিতে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে, অমরিন্দর সিং, অমিত শাহ, জেপি নাড্ডারা। ছবি সৌজন্য এএনআই।

আসন্ন পঞ্জাব নির্বাচনে ক্যাপ্টেন অমরিন্দরের পার্টি পঞ্জাব লোকদল ৩৭ টি আসনে লড়বে, আর বিজেপি লড়াই করবে ৬৫ আসনে। এই জোটের তৃতীয় শরিক শিরোমনি অকাল দল (সংযুক্ত) ১৫ টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে।

পঞ্জাব কংগ্রেসে প্রবল ভাঙন ধরিয়ে মন কষাকষির জেরে 'হাত' শিবিরের হাত ছেড়েছিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। পঞ্জাবের তখত ছাড়ার পরই তাঁর সঙ্গে দিল্লিতে অমিত শাহের তৎকালীন বৈঠক ঘিরে একাধিক জল্পনার পারদ চড়ে। পরে তিনি জানিয়ে দেন কংগ্রেসে ইতি টানার কথা ও নতুন রাজনৈতিক ইনিংস শুরুর ঘোষণা করেন। সেই সময়ই ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং ইঙ্গিত দিয়েছিলেন যে ২০২২ বিধানসভা ভোটে তিনি বিজেপির সঙ্গে থেকেই নিজের দল নিয়ে লড়বেন। আর সেই মতো সোমবার দিল্লিতে বিজেপির তরফে অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে বসেন অমরিন্দর সিং।

সোমবার দিল্লির হাইভোল্টেজ বৈঠকে আসন রফা নিয়ে দুই পক্ষের আলোচনা চলে। সেখানেই স্থির হয়েছে যে আসন্ন পঞ্জাব নির্বাচনে ক্যাপ্টেন অমরিন্দরের পার্টি পঞ্জাব লোকদল ৩৭ টি আসনে লড়বে, আর বিজেপি লড়াই করবে ৬৫ আসনে। এই জোটের তৃতীয় শরিক শিরোমনি অকাল দল (সংযুক্ত) ১৫ টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে বলে খবর। দিল্লিতে বিজেপি র তরফে অমিত শাহ ছাড়াও এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন পদ্মশিবিরের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। এদিনের আসন সমঝোতার পর জেপি নাড্ডা বলেন, 'পঞ্জাবের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া প্রয়োজন। রাজ্যের নিরাপত্তা সেখানে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সেরাজ্যে স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যেই এবারের নির্বাচন।' উল্লেখ্য, পঞ্জাব নির্বাচেনর বিভিন্ন ফ্যাক্টরের মধ্যে অন্যতম বড় বিষয় হল কৃষি আইন। তবে ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণার বহু আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তিনটি কৃষি আই প্রত্যাহারের কথা ঘোষণা করেন। এরপর পঞ্জাবের মাটিতে বিজেপির সঙ্গে প্রকাশ্যে হাত মেলায় অমরিন্দরের লোক কংগ্রেস। উল্লেখ্য, এর আগে লোক কংগ্রেসের তরফে পাঞ্জাব নির্বাচনে ২২ টি আসনে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হয়ে যায়। জানা যায়, পাটিয়ালা সিটি থেকে লড়ছেন স্বয়ং ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং। এরপর সোমবার দিল্লিতে এসে তিনি ও শিরোমনি অকালি দলের (সংযুক্ত) প্রতিনিধিরা বৈঠক করেন। কথা হয় আসন সমঝোতা নিয়ে।

উল্লেখ্য, আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি পঞ্জাবের বুকে ১১৭ আসন ঘিরে বিধানসভা ভোটের সম্মুখ সমরের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে একাধিক রাজনৈতিক দল। ইতিমধ্যেই শাসক শিবির কংগ্রেস তাদের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে। তাঁদের তরফে মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং ভোচ লড়বেন চমকৌর সাহিব থেকে। সমানে সমানে টক্কর দিতে অরবিন্দ কেজরিওয়ালও জানান দিয়েছেন তাঁর দলের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থীর নাম। আপ-এর ভগবন্ত মান দাঁড়াচ্ছেন ধুরি আসন থেকে। এই ভোটে সমস্ত মহাতারকা নিজের দুর্গ অটুট রাখতে পারেন কী না, তার দিকে তাকিয়ে পঞ্জাব।

 

বন্ধ করুন