বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ১৬ অগস্ট থেকে খুলে যাচ্ছে পুরীর জগন্নাথ মন্দির, দর্শনার্থীদের কী কী লাগবে?
আগামী ২৩ অগস্ট থেকে সকল দর্শনার্থীদের জন্য খুলে যাচ্ছে পুরীর জগন্নাথ মন্দির। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

১৬ অগস্ট থেকে খুলে যাচ্ছে পুরীর জগন্নাথ মন্দির, দর্শনার্থীদের কী কী লাগবে?

  • সপ্তাহে পাঁচদিন মন্দিরে সাধারণ দর্শনার্থীরা প্রবেশ করতে পারবেন।

আগামী ২৩ অগস্ট থেকে সকল দর্শনার্থীদের জন্য খুলে যাচ্ছে পুরীর জগন্নাথ মন্দির। তবে তাঁদের করোনাভাইরাস টিকার দুটি ডোজ নেওয়ার শংসাপত্র এবং নেগেটিভ আরটি-পিসিআর রিপোর্ট লাগবে। যে নেগেটিভ রিপোর্ট ৯৬ ঘণ্টার মধ্যে হতে হবে।

মন্দির কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, ১৬ অগস্ট (সোমবার) থেকে ২০ অগস্ট (শুক্রবার) পর্যন্ত মন্দির খোলা থাকবে। তবে ওই পাঁচদিন শুধুমাত্র স্থানীয় বাসিন্দারা ঢুকতে পারবেন। ২৩ অগস্ট থেকে শর্তসাপেক্ষে সকল দর্শনার্থীর জন্য মন্দিরের দরজা খুলে দেওয়া হবে। প্রতি সপ্তাহে সোমবার থেকে শুক্রবার সকাল সাতটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের মন্দিরে ঢুকতে পারবেন। শনিবার এবং রবিবার আমজনতার জন্য মন্দিরের দরজা বন্ধ থাকবে বলে মন্দিরের প্রধান প্রশাসক কৃশান কুমার। 

তারইমধ্যে বুধবার ওড়িশার তরফে জানানো হয়েছে, ভিনরাজ্য থেকে যাঁরা ওড়িশায় আসছেন, তাঁদের বাধ্যতামূলকভাবে করোনাভাইরাস টিকার দুটি ডোজ নেওয়ার শংসাপত্র বা নেগেটিভ আরটি-পিসিআর রিপোর্ট লাগবে না। এমনিতে ইতিমধ্যে ৩০ টি জেলার ২৭ টিতে করোনা বিধি শিথিল করে দেওয়া হয়েছে। তবে নতুন করে সংক্রমণের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় খুরদা, পুরী এবং কটক জেলায় সপ্তাহান্তে লকডাউন থাকবে।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ঘণ্টায় ওড়িশায় ১,৩১৫ জন নয়া আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। মৃত্যু হয়েছে ৬৬ জনের। তার ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬,১৬৮। মোট সংক্রমণের হার দাঁড়িয়েছে ২.০২ শতাংশ। রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিষেবার অধিকর্তা বিজয় মহাপাত্র জানান, সব জেলার মানুষ যাতে করোনার আরটি-পিসিআর পরীক্ষা করতে পারেন, সেজন্য ১৪ টি নয়া ল্যাবরেটরি গঠন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তার ফলে করোনা পরীক্ষার জন্য মানুষকে বেশি দূরে যেতে হবে না। পাশাপাশি তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়লেও পরীক্ষার সমস্যা হবে না বলে দাবি করেছেন স্বাস্থ্য পরিষেবার অধিকর্তা।

বন্ধ করুন