বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Quad meeting: ইন্দো-পেসিফিক এলাকাকে ফোকাসে রেখে ভারতের তরফে কোন বার্তা জয়শঙ্করের?
কোয়াড বৈঠকে জয়শঙ্কর। ছবি সৌজন্য- REUTERS/Sandra Sanders (REUTERS)

Quad meeting: ইন্দো-পেসিফিক এলাকাকে ফোকাসে রেখে ভারতের তরফে কোন বার্তা জয়শঙ্করের?

  • উল্লেখ্য, মেলবোর্নে আয়োজিত এই কোয়াডভূক্ত দেশগুলির জরুরি বৈঠকে আগামীতে টোকিওতে আয়োজিত হতে চলা বৈঠকের পিচ প্রস্তুত করা হয়। মেলবোর্নের বৈঠকে বারবার জোর দেওয়া হয়েছে ইন্দোপেসিফিক এলাকায় নিয়ম নীতি নির্ভর জলসীমার নিরাপত্তা নিয়ে।

কোয়াড্রিল্যাটারাল সিকিউরিটি গ্রুপ বা কোয়াড ভূক্ত দেশগুলির বিশেষ বৈঠক আয়োজিত হয় শুক্রবার। মেলবোর্নে আয়োজিত এই বৈঠকে ভারতের তরফে প্রতিনিধিত্ব করেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। চার দেশের এই কমিটির বৈঠকে ভারত ছাড়াও, জাপান, অস্ট্রেলিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে কোভিড থকে শুরু করে জলসীমার নিরাপত্তা সহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আলোচিত হয়।

উল্লেখ্য, মেলবোর্নে আয়োজিত এই কোয়াডভূক্ত দেশগুলির জরুরি বৈঠকে আগামীতে টোকিওতে আয়োজিত হতে চলা বৈঠকের পিচ প্রস্তুত করা হয়। মেলবোর্নের বৈঠকে বারবার জোর দেওয়া হয়েছে ইন্দোপেসিফিক এলাকায় নিয়ম নীতি নির্ভর জলসীমার নিরাপত্তা নিয়ে। প্রসঙ্গত, এই আলোচনার নাম না করা উদ্দেশে যে চিনই ছিল , তা বলাই বাহুল্য। দক্ষিণ চিন সাগরের জলসীমার অধিকার সংক্রান্ত বিষয়ে কোয়াডভূক্ত প্রায় সব দেশই চিনের বিরোধিতার রাস্তায় নেমেছে। এদিকে, এই বৈঠকে বিভিন্ন দেশের বিদেশমন্ত্রীরা হাজির ছিলেন। বৈঠক শেষে ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর জানান, আলোচনা অত্যন্ত ফলপ্রসূ হয়েছে। গণতান্ত্রিক ইস্যুতে একমত সহ স্ট্র্যটেজিক কনভারজেন্সের মতো বিষয়ের আলোচনা কোয়াডকে আরও বলিষ্ঠ করে তুলেছে। ভারতের বিদেশমন্ত্রী বলেন, ইন্দো পেসিফিকে অবাধ বিচরণের হেতুতে সকলের সহমত কোয়াডের বৈঠককে আরও উজ্জ্বল করেছে।

এছাড়াও বৈঠকে কোভিড টিকা সংক্রান্ত আলোচনা হয়। যাতে সমস্ত প্রান্তে করোনা ভ্যাকসিন পৌঁছে যায়, তার জন্য বার্তা দিয়েছে কোয়াডভূক্ত দেশগুলি। এছাড়াও পারস্পরিক সহযোগিতায় বাণিজ্যিক ব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্যও আলোচনা হয়েছে বলে জানান ভারতের বিদেশমন্ত্রী। এছাড়াও মানবিক সাহায্য, বিপর্যয় মোকাবিলা ও সন্ত্রাস রুখতে একযোগে কর্মকাণ্ড এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার বার্তা দিয়েছে এই কোয়াডভূক্ত দেশগুলি। এছাড়াও সাগরসীমার অধিকার নিয়েও সতর্ক থাকার বার্তা দিয়ে বিভিন্ন আলোচনা বৈঠকে হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। জয়শঙ্কর বলেন, শান্তি ও নিরাপত্তার স্বার্থে কোয়াডভূক্ত দেশগুলি একে অপরকে আসিয়ান সামিটেও সমর্থের প্রসঙ্গে একমত হয়েছে। মার্কিন বিদেশ সচিব অ্যান্টি ব্লিনকেন এই ইস্যুতে ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের প্রসঙ্গ তোলেন। তিনি বলেন, এমন ধরনের চ্যালেঞ্জ নিয়ম নীতি নির্ভর বিশ্বের নানা ব্যবস্থায় প্রভাব ফেলে, আর তার বাইরে নয় ইন্দো পেসিফিক এলাকা। ফলে এই এলাকায় মানুষের মুক্ত সমাজে থাকা যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনই অবাধ ইন্দো-পেসিফিক এলাকা হয়ে ওঠাও গুরুত্বপূর্ণ।

বন্ধ করুন