বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ডাক্তার হতে চেয়েছিল কাশ্মীরের মেধাবী ছাত্রী, জঙ্গিদের গ্রেনেড কেড়ে নিল প্রাণ
কাশ্মীরের মেধাবী ছাত্রীর মৃত্য়ু হয়েছে গ্রেনেড হামলায়, পরিবারে কান্নার রোল। (PTI Photo/S. Irfan) (PTI)

ডাক্তার হতে চেয়েছিল কাশ্মীরের মেধাবী ছাত্রী, জঙ্গিদের গ্রেনেড কেড়ে নিল প্রাণ

  • পরিবারে এখন শুধুই বুকফাটা কান্না।

৯৪ শতাংশ নম্বর নিয়ে দ্বাদশ শ্রেণি পাশ করেছিল রাফিয়া নজির। দুচোখে বড় হওয়ার স্বপ্ন। তার সাফল্যে বাড়িতে একেবারে উৎসবের আমেজ চলছিল। আর সেসবের মধ্যে জঙ্গিদের ছোঁড়া গ্রেনেড প্রাণ কেড়ে নিল ১৮ বছর বয়সী ওই মেধাবী কাশ্মিরী কন্যার। আমিরা কাদাল এলাকায় ভরা বাজারে গত রবিবার গ্রেনেড ছুঁড়েছিল জঙ্গিরা। আর সেই গ্রেনেডেই প্রথমে জখম হয়েছিলেন ওই ছাত্রী। পরে মৃত্যু হয় তার। কিন্তু প্রশ্নটা থেকেই গিয়েছে, কী দোষ ছিল ওই ছাত্রীর?

সূত্রের খবর, সেদিন মা আর বোনের সঙ্গে বাজারে গিয়েছিল রাফিয়া। সেখানেই গ্রেনেড ছোঁড়া হয়। স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, রক্তাক্ত অবস্থায় পড়েছিল সে। মাথা থেকে রক্ত বের হচ্ছিল। চোখ দুটো বোজা ছিল। এদিকে সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, চারদিকে ধোঁয়ায় ভরে গিয়েছে। মানুষ আতঙ্কে ছোটাছুটি করছে। এদিকে সেদিন রাফিয়ার সঙ্গে তার মা ও বোনও আহত হয়েছিলেন। কিন্তু রাফিয়ার আঘাত ছিল গুরুতর। তার মাথায় ভয়াবহ আঘাত লাগে। সোমবার সকালে মৃত্য়ু হয় তার।

মেধাবী ছাত্রীর মৃত্যুতে হজরতবাল এলাকায় এখন শোকের ছায়া। রাফিয়া উচ্চশিক্ষিত হয়ে প্রতিষ্ঠিত হবে। স্বপ্ন দেখত পরিবার। আরও ভালো রেজাল্ট করার জন্য পরিশ্রমের কোনও খামতি রাখত না রাফিয়া। চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন দেখত রাফিয়া। আর জঙ্গি হানায় সব স্বপ্ন চুরমার হয়ে গিয়েছে। তার বোন আমিনা বলেন, আমরা ভাবতাম একদিন বড় হয়ে রাফিয়া পরিবারের মুখে হাসি ফোটাবে। সব স্বপ্ন শেষ হয়ে গেল।

 

বন্ধ করুন