বাড়ি > ঘরে বাইরে > লকডাউনে আটকে পড়া শ্রমিকদের সাহায্য করছে না কেন্দ্র, দাবি রাহুলের
সামাজিক দূরত্বের তোয়াক্কা না করে গাজিয়াবাদ বাস টার্মিনাসে বাসের অপেক্ষায় ঘরমুখী ভিনরাজ্যের শ্রমিকরা। ছবি: এএনআই।
সামাজিক দূরত্বের তোয়াক্কা না করে গাজিয়াবাদ বাস টার্মিনাসে বাসের অপেক্ষায় ঘরমুখী ভিনরাজ্যের শ্রমিকরা। ছবি: এএনআই।

লকডাউনে আটকে পড়া শ্রমিকদের সাহায্য করছে না কেন্দ্র, দাবি রাহুলের

রাহুলের দাবি, ঘরে ফিরতে মরিয়া ভিনরাজ্যের শ্রমিকদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ করছে কেন্দ্রীয় সরকার।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের জেরে আরোপিত লকডাউনে ঘরে ফিরতে মরিয়া ভিনরাজ্যের শ্রমিকদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ করছে কেন্দ্রীয় সরকার। শনিবার এই অভিযোগ জানিয়ে নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করেন ওয়ানাডের কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী।

তাঁর অভিযোগ, রোজগারহীন বিপন্ন ঘরছাড়া শ্রমিকদের নিজরাজ্যে ফিরতে কোনও সহায়তা করছে না প্রশাসন। তাঁর টুইটার পোস্টে রাহুল লিখেছেন, ‘কর্মহীন ও অনিশ্চিত ভবিষ্যতের মুখাপেক্ষী সারা দেশে ছড়িয়ে থাকা আমাদের লাখ লাখ ভাইবোনরা ঘরে ফিরতে সংগ্রাম করছেন। কোনও ভারতীয় নাগরিককে এই পরিস্থিতিতে পড়তে দেওয়া আমাদের পক্ষে লজ্জাজনক এবং এই বিশাল ঘরমুখী যাত্রায় কোনও সহায়তার পরিকল্পনা নেই কেন্দ্রের।’

এ দিন সকালে বিপন্ন ভিনরাজ্যের শ্রমিকদের খাদ্য ও আশ্রয় দিতে দেশবাসী ও নিজের দলের কর্মীদের উদ্দেশে আবেদন জানান রাহুল।

Covid-19 সংক্রমণ রুখতে দেশজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। তার জেরে সমস্যায় পড়েছেন ভিনরাজ্যে কর্মরত শ্রমিকরা। কাজ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তাঁরা একদিকে যেমন বে-রোজগেরে হয়ে পড়েছেন, তেমনই পরিবহণ ব্যবস্থা অচল হওয়ায় তাঁরা ঘরে ফিরতেও পারছেন না। উপরন্তু হেঁটে গন্তব্যে পৌঁছানোর চেষ্টায় পথে নামলে পুলিশি হেনস্থার শিকার হচ্ছেন বিপন্ন শ্রমিকরা।

শুক্রবার দিল্লিতে উত্তর প্রদেশ, হরিয়ানা, উত্তরাখণ্ড ও বিহার থেকে আসা শ্রমিকদের খাবার ও পানীয় জল দিয়ে সাহায্য করেন স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশ।

তাঁদের সাহায্যে গাজিয়াবাদ ও গৌতম বুদ্ধ নগর থেকে কিছু বাস ছাড়ে উত্তর প্রদেশ রাজ্যসড়ক পরিবহণ নিগম (UPSRTC)। তাতে বাদুড়ঝোলা হয়ে ঘরে ফিরতে মরিয়া হয়েছেন হাজার হাজার শ্রমিক। নিগমের তরফে জানানো হয়েছে, গত ২৭ মার্চ মধ্যরাত পর্যন্ত মোট ৯৬টি বাস চলাচল করেছে। এ দিন আরও কিছু বাস চালানোর উদ্যোগ নেয় নিগম।

বন্ধ করুন