বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Rahul Gandhi's Bharat Jodo Yatra in Jammu: জোড়া বিস্ফোরণের পরও জম্মুতে জারি থাকল রাহুল গান্ধীর ভারত জোড়া যাত্রা

Rahul Gandhi's Bharat Jodo Yatra in Jammu: জোড়া বিস্ফোরণের পরও জম্মুতে জারি থাকল রাহুল গান্ধীর ভারত জোড়া যাত্রা

আজ কাঠুয়া জেলা থেকে শুরু হয়েছে রাহুল গান্ধীর ভারত জোড়ো যাত্রা। (HT_PRINT)

গতকাল জম্মুতে জোড়া বিস্ফোরণের পর ভারত জোড়ো যাত্রা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছিল। তবে কংগ্রেস নেতা রাহুল আজ কাঠুয়া জেলার হীরানগর মোড় থেকে শুরু করেন পদযাত্রা। আজকে এই যাত্রা গিয়ে পৌঁছবে সাম্বার দুগ্গার হাভেলিতে।

জোড়া বিস্ফোরণেও জম্মুতে জারি থাকল রাহুল গান্ধীর ভারত জোড়ো যাত্রা। কংগ্রেস নেতা রাহুল আজ কাঠুয়া জেলার হীরানগর মোড় থেকে শুরু করেন পদযাত্রা। আজকে এই যাত্রা গিয়ে পৌঁছবে সাম্বার দুগ্গার হাভেলিতে। গতকাল জম্মুতে জোড়া বিস্ফোরণের পর ভারত জোড়ো যাত্রা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছিল। তবে শনিবারই জম্মু ও কাশ্মীর প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির মুখপাত্র রবিন্দর শর্মা জানিয়েছিলেন, যাত্রা চলবে। সেই মতো আজকে সকালে যাত্রার সূচনা করেন রাহুল। প্রসঙ্গত এর আগে শনিবার জম্মুর নারওয়াল এলাকায় জোড়া বিস্ফোরণে আহত হয়েছেন অন্তত ৯ জন। ট্রান্সপোর্ট নগরের ৭ নম্বর ইয়ার্ডে দু’টি গাড়ির মধ্যে বিস্ফোরণ হয়। জানা গিয়েছে, মধ্যরাতে আরও একটি বিস্ফোরণ ঘটেছিল একটি ডাম্পারে। তবে সেই বিস্ফোরণের নেপথ্যে নাশকতা রয়েছে, নাকি তা নিছকই দুর্ঘটনা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। (আরও পড়ুন: 'যুগান্তকারী', ৫০ বছর পুরোনো সুপ্রিম রায় নিয়ে ধনখড়ের ভিন্নমত CJI চন্দ্রচূড়ের)

প্রজাতন্ত্র দিবসের আগে উপত্যাকর নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে জম্মু ও কাশ্মীরে। তবে এরই মধ্যে একই দিনে পরপর এই বিস্ফোরণে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। রাহুল গান্ধীর ‘ভারত জোড়ো যাত্রা’র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। তবে কংগ্রেস পিছপা হতে নারাজ। তারা যাত্রা জারি রাখবে বলে জানা গিয়েছে। কংগ্রেস নেতা রবিন্দর এই নিয়ে বলেন, 'জম্মু শহরে জোড়া বিস্ফোরণ অবশ্যই আমাদের সকলের জন্য গভীর উদ্বেগের কারণ। এই বিস্ফোরণগুলি থেকে প্রমাণিত হয় যে সরকার নিরাপত্তা নিয়ে যা দাবি করছে, তা আদতে ফাঁকা আওয়াজ।' উল্লেখ্য, আগামিকাল জম্মু শহরে পৌঁছনর কথা রাহুলের।

প্রসঙ্গত, ২০২২ সালের ৭ সেপ্টেম্বর তামিলনাড়ুর কন্যাকুমারী থেকে শুরু হয়েছিল ভারত জোড়ো যাত্রা। তারপর থেকে এই পদযাত্রা তামিলনাড়ু, কেরল, কর্ণাটক, অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলঙ্গানা, মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ এবং হরিয়ানা হয়ে কাশ্মীরে পৌঁছবে এই যাত্রা। মোট ১২টি রাজ্য এবং ২টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল দিয়ে গিয়েছে এই যাত্রা। আগামী ৩০ জানুয়ারি শ্রীনগরে শেষ হওয়ার কথা এই যাত্রার। রাহুল গান্ধী সেখানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করবেন সেদিন।

এদিকে যাত্রার অন্তিম পর্যায়ে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর সঙ্গে পা মেলানোর জন্য ২১টি সমমনস্ক রাজনৈতিক দলকে আহ্বান জানানো হয়েছে। দলের সভাপতি মল্লিকার্জুন খাড়গে এই আমন্ত্রণ পাঠিয়েছেন দেশের ২১টি রাজনৈতিক দলগুলিকে। পশ্চিমবঙ্গের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের পাশাপাশি রয়েছে জেডিইউ, শিবসেনা, তেলুগু দেশম পার্টি, সমাজবাদী পার্টি, বহুজন সমাজবাদী পার্টি, ডিএমকে, সিপিআই, সিপিআইএম, ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা, পিডিপি, এনসিপি, এমডিএমকে, ভিসিকে, ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লিগ, আরএসপিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

 

বন্ধ করুন