বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বিমানের মতো এবার ট্রেনে চড়লে দিতে হবে ইউজার চার্জ
আমদাবাদে একটি বিশেষ ট্রেনে পরিযায়ী শ্রমিকরা (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
আমদাবাদে একটি বিশেষ ট্রেনে পরিযায়ী শ্রমিকরা (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

বিমানের মতো এবার ট্রেনে চড়লে দিতে হবে ইউজার চার্জ

রেল স্টেশন রিডেভেলপমেন্টের জন্য এই টাকা ব্যবহার করা হবে। 

ঢেলে সাজানো হচ্ছে ভারতীয় রেল। স্টেশনগুলিকে রিডেভেলপ করা হচ্ছে, আসছে নয়া প্রযুক্তি। সেই জন্য এবার গ্যাঁটের কড়ি গচ্চা দিতে হবে, এমনই ইঙ্গিত করলেন নীতি আয়োগের সিইও অমিতাভ কান্ত। তিনি জানিয়েছেন খুব শীঘ্রই ইউজার ফিজ নেবে রেলওয়ে। এই প্রথম এরকম কোনও চার্জ বসাতে চলেছে রেল। 

বিমানের ক্ষেত্রে যাত্রীদের দিতে ইউজার ডেভেলপমেন্ট ফি( ইউডিএফ)। বিভিন্ন বিমানবন্দরে যাত্রীদের ভিন্ন পরিমাণে ইউডিএফ চোকাতে হবে। এার ৭০০-১০০০ স্টেশনে ইউজার ফিজ নিতে চলেছে রেল। 

রেলবোর্ডের সিইও ভিকে যাদব জানান যে খুব অল্প টাকা নেওয়া হবে ইউজার চার্জ হিসাবে। এই সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি যে সব স্টেশন পুনরায় তৈরী করা হচ্ছে সেখানে ও যেগুলি হচ্ছে না, দুটিতেই সাঁটা হবে। বিশ্বমানের পরিষেবা দিতে গেলে রেলের এই টাকাটি লাগবে বলে তিনি জানান। সমস্ত প্রধান রেলওয়ে স্টেশনকে আপগ্রেড করা হবে বলে জানান রেল বোর্ডের সিইও তথা চেয়ারম্যান। 

তবে সব স্টেশনে ইউজার চার্জ নেওয়া হবে না। ১০-১৫ শতাংশ স্টেশনে যেখানে আগামী পাঁচ বছরে ভিড় আরো বাড়বে, সেখানে নেওয়া হবে ইউজার চার্জ। রেলে বেসরকারি পুঁজি আনতে বহুদিন ধরে চেষ্টা করছে কেন্দ্র। প্রাথমিক ভাবে ৫০টি রেল স্টেশনকে রিডেভেলপ করা হবে। সেই স্টেশনের জমিগুলি লিজ দেওয়া হবে বাণিজ্যিক কারণে। রিডেভেলপড স্টেশনগুলিকে বলা হবে রেলোপলিস। 

জাপানের মতো ভারতেও রেলের মাধ্যমে আর্থিক বৃদ্ধি আনার স্বপ্ন দেখছে নীতি আয়োগ। অমিতাভ কান্ত বলেন যে ভবিষ্যতে আর্থিক বৃদ্ধির ১-২ শতাংশ হয়তো আনবে রেল। 

বেসরকারি ভাবে ট্রেন চালানোর কাজও শুরু করেছে রেল। এতে দেশে ম্যানুফ্যাকচারিংয়ে বড় প্রভাব পড়বে বলে আশা প্রকাশ করেন অমিতাভ কান্ত। 

 

 

বন্ধ করুন