মধ্যপ্রদেশের রিওয়া থেকে দুর্গাপুরের উদ্দেশে সাইকেলে রওনা দিলেন বাংলার পরিযায়ী শ্রমিকরা। রবিবার এএনআই-এর ছবি।
মধ্যপ্রদেশের রিওয়া থেকে দুর্গাপুরের উদ্দেশে সাইকেলে রওনা দিলেন বাংলার পরিযায়ী শ্রমিকরা। রবিবার এএনআই-এর ছবি।

পরিযায়ী শ্রমিকদের প্রবেশ ও প্রস্থানে শর্তাবলী আরোপ হল রাজস্থানে

পরিযায়ী শ্রমিকদের রাজস্থান সরকারের পোর্টাল emitra.rajasthan.gov.in, ই মিত্র মোবাইল অ্যাপ অথবা ই মিত্র কিয়স্কের মাধ্যমে নাম নথিভুক্ত করতে হবে।

পরিযায়ী শ্রমিকরা এবার রাজস্থান ছেড়ে যেতে পারবেন এবং বহিরাগত শ্রমিকরাও সে রাজ্যে প্রবেশ করতে পারবেন। তবে এ সবই হবে দফায় দজফায়, জানিয়েছেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট।

শনিবার গেহলট ঘোষণা করেন, এই সুবিধা পেতে হলে পরিযায়ী শ্রমিকদের রাজস্থান সরকারের পোর্টাল emitra.rajasthan.gov.in, ই মিত্র মোবাইল অ্যাপ অথবা ই মিত্র কিয়স্কের মাধ্যমে নাম নথিভুক্ত করতে হবে। এ ছাড়া নাম নিথিভুক্ত করা যাবে হেল্পলাইন নম্বর 18001806127-এর সাহায্যেও।

নথিভুক্তিকরণের পরে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের অনুমতি সাপেক্ষে শ্রমিকদের ফেরার দিনক্ষণ ঠিক করে সমস্ত ব্যবস্থা করবে রাজস্থান প্রশাসন।

ইতিমধ্যে রাজস্থানে করোনা শনিবার নতুন ৪৯ জন আক্রান্তের খবর পাওয়া গিয়েছে রাজস্থানে। এই নিয়ে রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২,০৮৩। এর মধ্যে মারা গিয়েছেন ৩৪ জন। ৫১৩ জন সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন।



আরও পড়ুন: শ্রমিকদের জন্য কোনও ট্রেন চালাবে না রেল, বর্ধিত লকডাউনে বাতিল হবে ৩৯ লাখ টিকিট


পরিযায়ী শ্রমিকদের যাতায়াতের বিষয়ে গতকাল জরুরি বৈঠকে বসেন মুখ্যমন্ত্রী গেহলট। তিনি জানিয়েছেন, নিজের রাজ্যে ফেরার পরেও পরিযায়ী শ্রমিকদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে। পাশাপাশি, তাঁদের স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী সমস্ত পদক্ষেপও সম্পূর্ণ করতে হবে।

রাজস্থানে নিজস্ব যানবাহনের সাহায্যে প্রবেশকারী পরিযায়ী শ্রমিকদের প্রথমে চেকপয়েন্টে নাম নথিভুক্ত করার পরে কারফিউ পাস সংগ্রহ করতে হবে। একই ভাবে ভিনরাজ্যে ফেরায় আগ্রহী শ্রমিকদের কারফিউ পাশ দেবেন জেলাশাসক।


আরও পড়ুন: ভিনরাজ্যে বাড়ি ফেরা যাবে না, তবে পরিযায়ী শ্রমিকদের কাজের অনুমতি দিল কেন্দ্র


পরিযায়ী শ্রমিকরা যাতে সামাজিক দূরত্ব বিধি যথাযথ মেনে চলেন, তা সুনিশ্চিত করতে ভারপ্রাপ্ত আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছেন গেহলট।

সেই সঙ্গে গ্রামস্তরে বহিরাগত শ্রমিকের প্রবেশ ঘটলে তা প্রশাসনের নজরে আনার আবেদনও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

বন্ধ করুন