প্যালেস্টাইনের রাস্তায় বিক্রি হচ্ছে রমজানের বহু চর্চিত মিষ্টি জাতীয় খাবার 'কাতায়েফ' (AFP)
প্যালেস্টাইনের রাস্তায় বিক্রি হচ্ছে রমজানের বহু চর্চিত মিষ্টি জাতীয় খাবার 'কাতায়েফ' (AFP)

রমজান ২০২০: সেহরি ও ইফতারের অর্থ কী? না জানলে চটপট জেনে নিন!

  • রমজান মাসের সঙ্গে ওতোপ্রোতভাবে জড়িয়ে রয়েছে সেহরি ও ইফতার।

করোনা সংকটের মাঝেও পবিত্র রমজান মাসকে স্বাগত জানাতে উদ্যোগী গোটা বিশ্বের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। রমজানের সঙ্গে ওতোপ্রোতভাবে জড়িয়ে রয়েছে রোজা শব্দটি। ফারসি ও উর্দু ভাষায় এই শব্দের প্রচালন রয়েছে। রোজার আরবি অর্থ হল সাওম। সাওম শব্দের আক্ষরিক অর্থ বিরত থাকা। গোটা রমজান মাস ধরে রোজার উপবাস পালন করেন মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষ। আর এই রোজার সঙ্গে যে দুটো শব্দ জড়িয়ে তা হল সেহরি ও ইফতার। ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা খুব গুরুত্ব সহকারে সেহরি এবং ইফতার সারেন রমজানের সময়। গোটা রমজান মাসব্যাপী সময় বারবার এই দুটি শব্দ আমরা শুনে থাকি। এর প্রকৃত অর্থ কি জানেন?

সেহরি’ আরবি শব্দ। আরবি ভাষায় সেহরির অর্থ হল অর্থ শেষ রাত বা ঊষা ইত্যাদি। শরিয়তে বলা হয়ে মাহে রমজানের রোজা রাখার নিয়তে শেষ রাতের পূর্ব মুহূর্তের খাবারকেই সেহরি বলে। সেহরি খাওয়া সুন্নাত এবং উত্তম কাজ বলে বিবেচিত হয়। এই সময় খেজুর, ফল, দুধ, সিমুই জাতীয় খাবার খাওয়া হয়।

এরপর সারাদিন কোনওরকম খাবার স্পর্শ করেন না তাঁরা। সন্ধ্যায় রোজার উপবাস ভাঙা করা হয় যে খাবারের সঙ্গে তাই হল ইফতার।অর্থাত্ সূর্যাস্তের পর যে খাবার খাওয়া হয় তাই হল ইফতার।মূলত খেজুর খেয়েই রোজা খোলার রীতি প্রচলিত রয়েছে। যদি খেজুর সহজলভ্য না হয় তাহলে কোনও মিষ্টিজাতীয় খাবার কিংবা জল খেলেও রোজা উপবাস ভাঙা যায়। জানা যায় খেজুর ও জল খেয়েই নাকি নবী হজরত মহম্মদ এই উপবাস ভেঙে ছিলেন। তারপর থেকেই এমনটাই মেনে চলা হয়।

ইফতারের খাবারে কাবাব, টিক্কা, বিরিয়ানি, নিহারি সব মজুত থাকে। শির খুরমা, দুধ দিয়ে নানা মিষ্টি, ক্ষীর, ফিরনির মতো মিষ্টজাতীয় খাবারও ইফতারের তালিকায় যুক্ত থাকে।



বন্ধ করুন