বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'হ্যাটস অফ স্যার', দু'বছর ধরে অসুস্থ প্রাক্তন কর্মীকে দেখতে পুণে গেলেন রতন টাটা

বয়সের ভারে অনেকটাই শারীরিক ক্ষমতা হারিয়েছেন। কিন্তু আজও মানুষটা যে এক রয়েছেন, আবারও সেই প্রমাণ দিলেন রতন টাটা। বছরদুয়েক ধরে অসুস্থ প্রাক্তন কর্মীকে দেখতে পুণে গেলেন রতন টাটা। তাতে রীতিমতো মুগ্ধ হয়েছেন নেট দুনিয়ার নাগরিকরা। ওই ব্যক্তির সঙ্গে ৮৩ বছরের শিল্পপতির সাক্ষাতের একটি ছবি নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

এমনিতে মুম্বইয়ে থাকেন প্রবীণ শিল্পপতি। সম্প্রতি তিনি জানতে পারেন যে প্রাক্তন এক কর্মী গত দু'বছর ধরে অত্যন্ত অসুস্থ। তারপরেই পুণের ফ্রেন্ডস সোসাইটিতে ওই কর্মীর বাড়িতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন শিল্পপতি। করোনাভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যেও সোমবার পুণেতে যান তিনি। অসুস্থ কর্মী ও তাঁর মেয়ের সঙ্গে কথা বলেন। আর সেই মুহূর্তের একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে।

লিঙ্কডিনের পোস্টে যোগেশ দেশাই নামে এক ব্যক্তি লেখেন, ‘নিজের পুরনো কর্মীর সঙ্গে দেখা করতে জীবন্ত কিংবদন্তি, ভারতের শ্রেষ্ঠ ব্যবসায়ী শ্রী রতন টাটা (৮৩ বছর) মুম্বই থেকে পুণের ফ্রেন্ডস সোসাইটিতে এসেছিলেন। যিনি দু'বছর ধরে অসুস্থ। কিংবদন্তিরা এরকমই হয়ে থাকেন। কোনও সংবাদমাধ্যম নেই, কোনও বাউন্সার নেই, আছে শুধু বিশ্বস্ত কর্মীদের প্রতি ভালোবাসা। সব উদ্যোগপতি এবং ব্যবসায়ীদের অনেক কিছু শেখার আছে যে শুধুমাত্র টাকাটাই গুরুত্বপূর্ণ নয়। দুর্দান্ত মানুষ হওয়াটাও গুরুত্বপূর্ণ। হ্যাটস অফ স্যার। শ্রদ্ধায় নতমস্তকে প্রণাম জানাচ্ছি।’

গত ৪ জানুয়ারি লিঙ্কডিনের সেই পোস্টে লাখেরও বেশি মানুষ নিজেদের প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন। মুগ্ধ হয়েছেন রতন টাটার মতো মানুষের অসামান্য ব্যবহারে। কীভাবে সেই মানুষটা সকলের কাছে আদর্শ উঠতে পারেন, সে কথাও জানিয়েছেন নেটিজেনরা। তবে তাঁর এরকম আচরণে মুগ্ধ হলেও কেউ অবাক নন। তাঁদের বক্তব্য, এরকম আচরণের জন্যই তো তিনি পাঁচজন শিল্পপতির মতো নন।

বন্ধ করুন