বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Ration Card Application: বাড়ি বসেই অনলাইনে রেশন কার্ডের আবেদন, কীভাবে জানুন?
ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস (HT_PRINT)
ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস (HT_PRINT)

Ration Card Application: বাড়ি বসেই অনলাইনে রেশন কার্ডের আবেদন, কীভাবে জানুন?

রেশন কার্ড পাওয়া নিয়ে অনেক বিভ্রান্তি রয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্যে। অথচ বাড়ি বসে স্মার্টফোন থেকেই আবেদন করা সম্ভব।

এখনও দেশে অনেকেরই রেশন কার্ড নেই। আবার কারও কারও আবার দাবি, অনেক দৌড়-ঝাঁপ করে রেশন কার্ড মিলেছে। মোট কথা রেশন কার্ড পাওয়া নিয়ে অনেক বিভ্রান্তি রয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্যে।

 

তাছাড়া করোনা লকডাউন পরিস্থিতির মধ্যে এখন বেশি বাইরে বের হওয়াও উচিত্ নয়। কিন্তু, বর্তমান পরিস্থিতিতে রেশন নিয়মিত সংগ্রহ করাও প্রয়োজন। তাহলে উপায়?

 

চিন্তার কোনও কারণ নেই। আপনার বাড়িতে বসেই আবেদন করতে পারবেন রেশন কার্ডের। আর তা করতে কম্পিউটারেরও প্রয়োজন নেই। ইন্টারনেট কানেকশান-সহ স্মার্টফোন থেকেই খুব সহজে রেশন কার্ডের আবেদন করতে পারবেন। প্রতিটি রাজ্য সরকারই এই কারণে একটি আলাদা পোর্টাল তৈরী করেছে। আপনি যে রাজ্যের বাসিন্দা সেই রাজ্যের পোর্টালে গিয়ে আবেদন করতে পারবেন।

 

তবে তার আগে জানতে হবে, 

কারা রেশন কার্ডের আবেদন করতে পারবেন?

বলাই বাহুল্য, রেশন কার্ড পেতে আপনাকে ভারতীয় নাগরিক হতে হবে। আর বয়স হতে হবে ১৮ বছর ও তার উর্ধ্বে। তার থেকে কম বয়সীরা মা-বাবার রেশনকার্ডের মধ্যেই অন্তর্ভুক্ত থাকে।

কী করে অনলাইনে রেশন কার্ডের আবেদন করবেন?

 

 

1

প্রথমেই আপনার রাজ্যের রেশন কার্ড সংক্রান্ত অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যান। আপনি যদি পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হন, সেক্ষেত্রে যেতে হবে এই লিঙ্কে : https://wbpds.gov.in/PDS/application.html

2

এবার Apply online for ration card অপশনটিতে টাচ করুন। সেখানে অনলাইনে আবেদনপত্র ভরুন।

3

রেশন কার্ডের আবেদন করতে কী কী নথি প্রয়োজন?

আধার কার্ড, ভোটার আইডি, পাসপোর্ট, হেল্থ কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স ইত্যাদির আইডি প্রুফ হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে।

4

অ্যাপ্লিকেশন ফি:
রাজ্য বিশেষে নির্ভরশীল। অ্যাপ্লিকেশন ভরার পর ফি দিতে হবে। ফি সাধারণত ৫টাকা থেকে ৪৫ টাকা পর্যন্ত হয়।

5

ফিল্ড ভেরিফিকেশনের পর যদি আপনার অ্যাপ্লিকেশান সঠিক বলে বিবেচিত হয়, তবেই আপনার অপেক্ষা শেষ। পেয়ে যাবেন আপনার রেশন কার্ড।

বন্ধ করুন