বাড়ি > ঘরে বাইরে > ১১ বার হনুমান চালিসা পাঠ করলেই করোনা সেরে যাবে, নিদান কংগ্রেস নেতার
দিল্লিতে করোনা সচেতনতা  (PTI)
দিল্লিতে করোনা সচেতনতা  (PTI)

১১ বার হনুমান চালিসা পাঠ করলেই করোনা সেরে যাবে, নিদান কংগ্রেস নেতার

দলের সরকারি অবস্থান নয়, বলল কংগ্রেস। 

মহেন্দ্র ঠাকুর

 

সারা দুনিয়া হাপিত্যেশ করছে, কবে মিলবে করোনার ওষুধ। অন্যদিকে মধ্যপ্রদেশের এক কংগ্রেস নেতা বলে দিলেন যে চিন্তার কিছু নেই, হনুমান চালিসা পাঠ করলেই করোনার বিরুদ্ধে সুরক্ষাকবচ তৈরী হবে। দেশে ইতিমধ্যেই করোনায় ৮ হাজার জন মারা গিয়েছেন। আক্রান্ত ২.৮৬ লক্ষ মানুষ। 

কংগ্রেসের প্রাক্তন বিধায়ক রমেশ সাক্সেনা মধ্যপ্রদেশের সিহোরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে এই নিদান দেন। রমেশবাবু বলেন যে পরিবারের সবাই মিলে যদি একসঙ্গে হনুমান চালিসা পাঠ করা যায় এগারোবার, তাহলে করোনা দূর হয়ে যাবে। মাত্রা আধ ঘণ্টাতেই হবে করোনা থেকে মুক্তি, এটা হলফ করে বলতে পারি। 

১৯৯৩-২০০৮, বিধানসভায় গিয়েছেন এই বরিষ্ঠ নেতা। তাঁর এই অবৈজ্ঞানিক দাওয়াইয়ে বিব্রত কংগ্রেস। প্রসঙ্গত এর আগে বিজেপিতে ছিলেন তিনি। গত বছরের জানুয়ারিতে কংগ্রেসে আসেন রমেশ। তবে নিজের এই কথার স্বপক্ষে যুক্তিও খাড়া করেছন তিনি। 

তিনি বলেন হনুমান চালিসায় একটা লাইন আছে- নাসে রোগ হারে সব পিরা, জাপাট নিরান্তর হনুমান ভিরা ( ভগবান হনুমানের নাম বার বার বললে যে কোনও রোগমুক্তি হয়)। রমেশ বলেন যে এই কথায় বিশ্বাস করা উচিত, বিশ্বাসে ফল আসে। এর আগে শিলাবৃষ্টি রোধেও একই পরামর্শ দিয়েছিলেন তিনি। 

বিজপির মুখপাত্র রাজনীশ আগরওয়াল বলেন ধর্মীয় গ্রন্থ পড়লে মনোবল নিশ্চয়ই বাড়ে, কিন্তু তার মানে এই নয় যে কোনও কোভিড রোগী তাতেই সেরে উঠবেন। যারা পাবলিক লাইফে আছেন, তাদের এরকম উক্তি করা উচিত নয়, বলেই বিজেপি মুখপাত্রের অভিমত। 

রমেশ সাক্সেনার মন্তব্য দলের অবস্থান নয়, বলে স্পষ্ট করে দিয়েছেন কংগ্রেস মুখপাত্র ভূপেন্দ্র গুপ্ত। তবে তিনি এই বক্তব্যকে প্রধানমন্ত্রীর থালা বাজানোর পরামর্শের সঙ্গে একই পংক্তিতে রাখছেন। 

বন্ধ করুন