বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ২৮ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে ১৮ বছরের উর্ধ্বে করোনা টিকাকরণের রেজিস্ট্রেশন
প্রতীকী ছবি (সৌজন্যে পিটিআই)
প্রতীকী ছবি (সৌজন্যে পিটিআই)

২৮ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে ১৮ বছরের উর্ধ্বে করোনা টিকাকরণের রেজিস্ট্রেশন

  • ১৮ বছরের উর্ধ্বে টিকাকরণেরর রেজিস্ট্রেশন শুরু হবে আগামী বুধবার অর্থাত্ ২৮ এপ্রিল থেকে। কোউইন অ্যাপে এই রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। আজ একথা ঘোষণা করেন ন্যাশনাল হেলথ অথরিটির চিফ এগ্‌জি‌কিউটিভ অফিসার আরএস শর্মা।

দেশ জুড়ে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ যেভাবে বাড়ছে তাতে বিশেষজ্ঞদের কপালে চিন্তায় গভীর ভাঁজ পড়েছে। এই আবহে কেন্দ্রের তরফে ঘোষণা করা হয় যে ১ মে থেকে সকল প্রাপ্তবয়স্ক , অর্থাত্ আঠারো বছরের উপরে সবাইকে টিকা দেওয়া শুরু হবে। ১ মে থেকে তৃতীয় দফার যে টিকাকরণ শুরু হচ্ছে, তা আরও বেশি মুক্ত ও দ্রুত হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্র। আর সেই টিকাকরণেরর রেজিস্ট্রেশন শুরু হবে আগামী বুধবার অর্থাত্ ২৮ এপ্ থেকে। কোউইন অ্যাপে এই রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। আজ একথা ঘোষণা করেন ন্যাশনাল হেলথ অথরিটির চিফ এগ্‌জি‌কিউটিভ অফিসার আরএস শর্মা।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী, দেশে যে পরিমাণ করোনার টিকা তৈরি হবে, তার ৫০ শতাংশ কেন্দ্রকে দেওয়া হবে এবং বাকি ৫০ শতাংশ অন্যত্র দেওয়া হবে। এছাড়া বাইরে থেকে আমদানি করা সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত টিকাও খোলা বাজারে ব্যবহার করা যাবে।

সরকারি টিকাকরণ কেন্দ্রগুলিতে আগের মতোই বিনামূল্য করোনার টিকা পাবেন স্বাস্থ্যকর্মী থেকে শুরু করে প্রথম সারির করোনা যোদ্ধারা এবং ৪৫ ঊর্ধ্ব নাগরিকরা। সিরাম ইনস্টিটিউটের তরফে ইতিমধ্যেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, রাজ্য সরকারগুলিকে ৪০০ টাকা দরে এবং বেসরকারি হাসপাতালকে ৬০০ টাকা দরে কোভিশিল্ড টিকা বিক্রি করা হবে।

এদিকে করোনা মোকাবিলায় ভ্যাকসিন কেনার জন্য ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে রাজ্য সরকার। রাজ্যে ১৮ থেকে ৪৫ বছর বয়সীদের টিকাকরণ ৫ মে থেকে শুরু হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

উল্লেখ্য, বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভ্যাকসিন উৎপাদক দেশ হওয়া সত্ত্বেও এখনও পর্যন্ত ১.০৩ শতাংশ মানুষ ভ্যাকসিন পেয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে এদিন দেশে আরও বাড়ল করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ। দৈনিক সংক্রমণ বিশ্বে শীর্ষে পৌঁছে তিন লক্ষের ছাড়িয়ে গেল ভারতে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩.১৪ লক্ষেরও বেশি মানুষ। দেশে বর্তমানে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ২২,৯১,৪২৮।

 

বন্ধ করুন