বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Rishi Sunak on FTA after meeting Modi: ‘মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি করতে চায় UK, তবে...’, মোদীর সঙ্গে বৈঠকের পর যা বললেন ঋষি

Rishi Sunak on FTA after meeting Modi: ‘মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি করতে চায় UK, তবে...’, মোদীর সঙ্গে বৈঠকের পর যা বললেন ঋষি

ঋষি সুনক এবং নরেন্দ্র মোদী (AP)

চলতি বছর দিওয়ালিতেই মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি হওয়ার কথা ছিল ভারত এবং ব্রিটেনের মধ্যে। তবে তা আপাতত পিছিয়ে গিয়েছে। দুই পক্ষই এই চুক্তির চূড়ান্ত খসড়া তৈরি করতে আলোচনা করছে।

ভারত ও ব্রিটেনের মধ্যে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে বড় মন্তব্য করলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। বুধবার ঋষি বলেন যে তাঁর সরকার ভারতের সাথে বাণিজ্য চুক্তি করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। তিনি বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য চুক্তি করার বিষয়ে আমরা মুখিয়ে রয়েছি। তবে কিছু বিষয় ঠিক করতে হবে। তারপরই এই চুক্তি সম্পন্ন করা সম্ভহ।’ তিনি বলেন, ‘তাড়াতাড়ি করতে গিয়ে চুক্তির মান নিয়ে কোনও আপস করা হবে না।’ উল্লেখ্য, চলতি বছর দিওয়ালিতেই মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি হওয়ার কথা ছিল ভারত এবং ব্রিটেনের মধ্যে। তবে তা আপাতত পিছিয়ে গিয়েছে। দুই পক্ষই এই চুক্তির চূড়ান্ত খসড়া তৈরি করতে আলোচনা করছে।

বালিতে জি২০ শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকে এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তৃতা দেওয়ার সময় সুনক আরও বলেন, ‘আমি আত্মবিশ্বাসী ব্রিটেন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় করতে পারবে।’ তবে তিনি জানান, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে বাণিজ্য চুক্তি সম্পর্কে বিশেষভাবে কোনও কথা বলেননি তিনি।

এদিকে এদিন ঋষি সুনকের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী মোদী এক টুইট বার্তায় লেখেন, ‘আমরা বাণিজ্যিক সংযোগ বাড়ানোর উপায় নিয়ে আলোচনা করেছি। প্রতিরক্ষা সংস্কারের প্রেক্ষিতে নিরাপত্তাজনিত বিষয়ে সহযোগিতার সুযোগ বৃদ্ধি করা এবং জনগণের মধ্যে সম্পর্ক আরও দৃঢ় করতে ভারত ও ব্রিটেন একসঙ্গে কাজ করবে।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলেই জি২০ সম্মেলনের ফাঁকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সংক্ষিপ্ত সাক্ষাত হয়েছিল ব্রিটেনের প্রথম ভারতীয় বংশোদ্ভূত প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনকের। আর আজ সকালেই ব্রিটিশ সরকার জানায়, ১৮ থেকে ৩০ বছর বয়সি ৩০০০ ভারতীয় পেশাদারদের ভিসা দেবে ব্রিটেন। ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে ঋষির অফিসের তরফে প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘ভারতই প্রথম দেশ যারা এই ধরনের ভিসা স্কিমের লাভ পেতে চলেছে। ভারত-ব্রিটেন অভিবাসন নীতিকে আরও পোক্ত করতে গতবছর যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল, তার ভিত্তিতেই এই ভিসা অনুমোদনের সিদ্ধান্ত।’

বন্ধ করুন