বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ফল প্রকাশের পরেও নাম বদল করা যাবে, CBSE-র নিয়মকে খারিজ করে সুপ্রিম রায়
ফাইল ছবি (MINT_PRINT)
ফাইল ছবি (MINT_PRINT)

ফল প্রকাশের পরেও নাম বদল করা যাবে, CBSE-র নিয়মকে খারিজ করে সুপ্রিম রায়

  • এদিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এ এম খানউইলকর, বিচারপতি বি আর গাভাই ও বিচারপতি কৃষ্ণ মুরারি জানান, সিবিএসই–এর ফল প্রকাশের পরও কোনও পড়ুয়া আধার কার্ড, জন্মের শংসাপত্র বা ভোটার আই কার্ড দেখিয়ে নামের বদল, জন্মের তারিখের বদল করতে পারবে।

‌এবার থেকে সিবিএসই ফল প্রকাশের পর পরীক্ষার্থীরা তাঁর নিজের নাম, জন্মের তারিখ পরিবর্তন করতে পারবে।বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট এই কথাই স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছে।এর ফলে সিবিএসই–এর ১৪ বছরের নিয়মে বদল হতে চলেছে। এদিন শীর্ষ আদালতের তরফে জানানো হয়েছে, ফল প্রকাশের পরও কোন ছাত্রছাত্রীর নাম পরিবর্তন বা জন্মের তারিখ পরিবর্তনে কোনো বাধা নেই।

এদিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এ এম খানউইলকর, বিচারপতি বি আর গাভাই ও বিচারপতি কৃষ্ণ মুরারি জানান, সিবিএসই–এর ফল প্রকাশের পরও কোনও পড়ুয়া আধার কার্ড, জন্মের শংসাপত্র বা ভোটার আই কার্ড দেখিয়ে নামের বদল, জন্মের তারিখের বদল করতে পারবে। সিবিএসই–এর দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা নিয়মকে খণ্ডন করে ৩ বিচারপতির বেঞ্চ জানিয়ে দেয়, বোর্ডের ওই নিয়মের কোনও কোনও মানে নেই। তবে এই পড়ুয়াকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আবেদন করতে হবে। একইসঙ্গে শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যে নাম বদলের অনুরোধ করা হয়েছে তা যদি সরকারি নথির সঙ্গে না মেলে তাহলেও তা বোর্ডকে বিবেচনা করে দেখতে হবে। সেক্ষত্রে আদালতের অনুমতি বা সরকারি গেজেটে তা প্রকাশ করা প্রয়োজন। ১৩২ পাতার রায়ে শীর্ষ আদালত স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে, একজন ব্যক্তির তাঁর নিজের নাম বদল করার পূর্ণ অধিকার রয়েছে। আইন সেই ব্যক্তিকে পূর্ণ অধিকার দেয় সেই কাজ করার।

এদিন বোর্ডের তরফে অবশ্য শীর্ষ আদালতের কাছে যুক্তি দেখানো হয় যে, এই নাম বদলের মধ্যে দিয়ে কোনও ব্যক্তি তাঁর অধিকারের অপব্যবহার করতে পারে। কিন্তু আদালতের সেক্ষেত্রে বক্তব্য, অপব্যবহারের আশঙ্কা থাকতেই পারে, কিন্তু একজন ব্যক্তির অধিকারকে খর্ব করা যায় না। এদিন আদালত তার পর্যবেক্ষণে জানায়, যদি কোন পড়ুয়া কম বয়সে কোনও অপরাধে জড়িত হয়ে পড়ে, তাহলে সে যদি তাঁর স্কুলের রেকর্ডে নাম বদলের আবেদন জানায়, সেক্ষেত্রে বোর্ডের উচিত তার অনুমোদন দেওয়া।কারণ, বোর্ড যদি অনুমোদন না দেয়, তাহলে সেই পড়ুয়াকে সেই নাম বহন করে বাকি জীবন ভয়ের মধ্যে কাটাতে হবে। এদিন আদালত জানায়, যদি কোনও নাগরিক আধার কার্ডে তাঁর ব্যক্তিগত তথ্য বদল বা সংশোধন করতে পারে, তাহলে বোর্ড কেন পারবে না।

এর আগে সিবিএসই বোর্ডে ফল প্রকাশের পর নামের বদল বা জন্মের তারিখ বদলের সুযোগ ছিল না। ২০০৭ সালের আইনে সেই সুযোগ না থাকলেও এরপরে আইন কিছুটা সংশোধনী অবশ্য আনা হয়েছিল। সেখানে বলা হয়েছিল, ফল প্রকাশের আগে আদালতের নির্দেশ বা গেজেট নোটিফিকেশনের ভিত্তিতে সিবিএসই কোনও পড়ুয়ার নামের বদল করতে পারে।

বন্ধ করুন