বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Rumeysa Gelgi: বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা মহিলা রুমেইসার প্রথম বিমান সফর! খুলে নিতে হল ৬ টি সিট, এভাবে চলল অভ্যর্থনা

Rumeysa Gelgi: বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা মহিলা রুমেইসার প্রথম বিমান সফর! খুলে নিতে হল ৬ টি সিট, এভাবে চলল অভ্যর্থনা

বিশ্বের দীর্ঘতম মহিলা রুমেস্যা গেলগি

যাতে বিমানের ভিতর রুমেইসা ঠিকঠাকভাবে প্রবেশ করত পারেন, তার জন্য বিমানের ভিতরের ৬ টি সিট উঠিয়ে দেওয়া হয়। ইকোনমিক ক্লাসের সিট থেকে এই আসনগুলি সরিয়ে দেওয়া হয়। সেখানে রুমেইসার জন্য একটি বিশেষ স্ট্রেচারের বন্দোবস্ত করা হয়। আর সেখানে শুয়ে ১৩ ঘণ্টার বিমান সফরে অংশ নেন রুমেইসা। গোটা ঘটনার কথা ইনস্টাগ্রামে জানান রুমেইসা।

বয়স ২৪। তুরস্কের বাসিন্দা রুমেইসা গেলগি বিশ্বের দীর্ঘতম মহিলা হিসাবে ইতিমধ্যেই পরিচিতি পেয়েছেন। ফের একবার খবরের শিরোনাম কেড়েছেন তিনি। রুমেইসার উচ্চতা ৭ ফুট ০৭ ইঞ্চি। আর দীর্ঘাঙ্গী মহিলা হিসাবে খেতাব জয়ী রুমেইসা ফের খবরের শিরোনামে। কেন জানেন? তিনি সদ্য প্রথমবার বিমান সফর করেছেন। আর সেই সফরই কেড়েছে লাইমলাইট।

গত বছর বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘাঙ্গী মহিলা হিসাবে রুমেইসার নাম উঠে আসে গিনেশ বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে। বছর ঘুরতেই ফের খবরে রুমেইসা। সদ্য তুরস্ক থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্যান ফ্রান্সিসকোতে তিনি বিমানপথে উড়ে যান। ১৩ ঘণ্টার লম্বা এই সফর, রমেইসার পক্ষে মোটেও সহজ ছিল না। কারণ তাঁর এই বিমানযাত্রায় বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছিল তাঁর উচ্চতা। বিমানের ভিতর তাঁর মাথা ছাদের সঙ্গে ঠেকে যাওয়ার আশঙ্কা ছিল। ফলে টার্কিশ এয়ারলাইন্স নিয়েছে এক পদক্ষেপ। যাতে বিমানের ভিতর রুমেইসা ঠিকঠাকভাবে প্রবেশ করত পারেন, তার জন্য বিমানের ভিতরের ৬ টি সিট উঠিয়ে দেওয়া হয়। ইকোনমিক ক্লাসের সিট থেকে এই আসনগুলি সরিয়ে দেওয়া হয়। সেখানে রুমেইসার জন্য একটি বিশেষ স্ট্রেচারের বন্দোবস্ত করা হয়। আর সেখানে শুয়ে ১৩ ঘণ্টার বিমান সফরে অংশ নেন রুমেইসা। গোটা ঘটনার কথা ইনস্টাগ্রামে জানান রুমেইসা।

উল্লেখ্য, বিশ্বের দীর্ঘতম মহিলা রুমেইসা গেলগির রয়েছে ওয়েভার সিন্ড্রোম। যারফলে ক্রমাগত বৃদ্ধি হতে থাকে শরীরে। এই সিন্ড্রোমের জেরে তিনি এক বিরল রোগে আক্রন্ত। এতে আরও এক সমস্যা দেখা যায়, তা হল ক্র্যানিও ফেশিয়াল স্কেলেটাল। এছাড়াও কিছু নিউরোলজিক্যাল সমস্যা দেখা যায় শরীরে। যারফলে হুইলচেয়ারে করেই চলতে হয় রুমেইসাকে। তবে জীবনিশক্তির কোনও খামতি তিনি নিদের মধ্যে রাখতে দেননি। চালিয়ে যাচ্ছেন অসামান্য লড়াই।

 

 

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন