বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > S Jaishankar on Ukraine war in UNSC: 'মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনার তদন্ত হোক', UNSC-তে ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধের ডাক জয়শঙ্করের
ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর (ANI)

S Jaishankar on Ukraine war in UNSC: 'মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনার তদন্ত হোক', UNSC-তে ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধের ডাক জয়শঙ্করের

  • জয়শঙ্কর বলেন, ইউক্রেন যুদ্ধের বিষয়টি গোটা বিশ্বের কাছেই গভীর উদ্বেগের। আমরা সবাই দেখতে পাচ্ছি কীভাবে নিত্যপ্রয়োজনী সামগ্রীর দাম বেড়ে চলেছে।

কয়েকদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেখা করেছিলেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে। পুতিনকে মোদী বলেছিলেন, ‘এটা যুদ্ধ করার সময় নয়।’ আর এবার রাষ্ট্রসংঘের মাঞ্চে দাঁড়িয়ে অবিলম্বে ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধের পক্ষে সওয়াল করলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। জয়শঙ্কর এই যুদ্ধকে ‘উদ্বেগজনক’ আখ্যা দেন। নিরাপত্তা পরিষদে বক্তব্য রাখার সময় জয়শঙ্কর বৃহস্পতিবার বলেন, ‘দুই দেশের যুদ্ধ ছেড়ে আলোচনার টেবিলে ফেরা উতিত। যেমনটা আমাদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আগেই বলেছিলেন, এটা যুদ্ধের সময় নয়।’

জয়শঙ্কর বলেন, ‘ইউক্রেন যুদ্ধের বিষয়টি গোটা বিশ্বের কাছেই গভীর উদ্বেগের। আমরা সবাই দেখতে পাচ্ছি কীভাবে নিত্যপ্রয়োজনী সামগ্রীর দাম বেড়ে চলেছে। বিশেষ করে খাদ্যশস্য, সার এবং জ্বালানীর দাম বাড়ছে বিশ্ব জুড়ে। তাই এই যুদ্ধ উদ্বেগের। ভারত দৃঢ় কণ্ঠে বলতে চায়, এখনই যুদ্ধ থামিয়ে আলোচনার টেবিলে ফেরা উচিত দুই দেশের। কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে সমাধানসূত্র খোঁজা উচিত।’ পাশাপাশি জয়শঙ্কর এদিন আরও বলেন, ‘কোনও যুক্তিতেই মানবাধিকার লঙ্ঘন বা আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের মতো ঘটনা ঘটতে পারে না। এর কোনও ব্যাখ্যা হতে পারে না। যেখানেই এই ধরনের ঘটনা ঘটে থাকুক না কেন, সেখানে স্বাধীনভাবে তদন্ত হওয়া প্রয়োজন।’

উল্লেখ্য, বিগত কয়েক দশক ধরে রাশিয়ার ভালো বন্ধু ভারত। ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে বরাবর নিরপেক্ষ অবস্থান গ্রহণ করলেও ভারত এউ যুদ্ধ বন্ধের ডাক দিয়েছে প্রথম থেকেই। এদিকে সাম্প্রতিককালে আমেরিকার সঙ্গেও ভারতের সুসম্পর্ক গড়ে উঠেছে। তবে তা সত্ত্বেও রাষ্ট্রসংঘে রাশিয়ার বিরুদ্ধে কোনও প্রস্তাবনার পক্ষে ভোট দেওয়া থেকে দীর্ঘদিন বিরত থেকেছে ভারত। এই নিয়ে পশ্চিমি বিশ্বের সমালোচনার মুখে ভারত নিজেদের অবস্থানে অনড় থেকেছে। পাশাপাশি বরাবরই শান্তি বজায় রাখার বার্তা দেওয়া হয়েছে ভারতের তরফে। এই আবহে নিরাপত্তা পরিষদের মঞ্চে জয়শঙ্করের এই বক্তব্য অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য বলে মনে করা হচ্ছে। এর আগে বুধবার রাষ্ট্রসংঘের সদর দফতরে জয়শঙ্করের সঙ্গে দেখা হয়েছিল ইউক্রেনের প্রধানমন্ত্রীর। তখনও আলোচনার টেবিলে ফেরার বার্তা দিয়েছিলেন ভআরেতর বিদেশমন্ত্রী।

 

বন্ধ করুন