বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > SAARC meet 2020: সংহতির পথে বাধা সন্ত্রাস, নাম না-করে পাকিস্তানকে তোপ জয়শংকরের
SAARC ভার্চুয়াল বৈঠকে জয়শংকর যে পাকিস্তানের উদ্দেশেই বিষোদ্গার করেছেন, তা স্পষ্ট।
SAARC ভার্চুয়াল বৈঠকে জয়শংকর যে পাকিস্তানের উদ্দেশেই বিষোদ্গার করেছেন, তা স্পষ্ট।

SAARC meet 2020: সংহতির পথে বাধা সন্ত্রাস, নাম না-করে পাকিস্তানকে তোপ জয়শংকরের

  • দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তি ও নিরাপত্তা স্থাপনে সীমান্ত সন্ত্রাস, ইন্টারনেট সংযোগ নিষিদ্ধকরণ এবং বাণিজ্যে বাধা দানের মতো বিষয়গুলি অতিক্রম করাই SAARC-এর সামনে বড় চ্যালেঞ্জ।

দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তি ও নিরাপত্তা স্থাপনে সীমান্ত সন্ত্রাস, ইন্টারনেট সংযোগ নিষিদ্ধকরণ এবং বাণিজ্যে বাধা দানের মতো বিষয়গুলি অতিক্রম করাই সার্ক দেশগুলির সামনে আপাতত সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। বৃহস্পতিবার সংগঠনের আট সদস্য রাষ্ট্রের বিদেশমন্ত্রীদের ভার্চুয়াল সম্মেলনে এই অভিমত প্রকাশ করলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর।

রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ পরিষদের বৈঠকের মাঝেই প্রতি বছর সার্ক-এর এই সম্মেলন আয়োজিত হয়। সাম্প্রতিক কয়েক বছরে ভারত-পাকিস্তান দ্বন্দ্বের জেরে এই আয়োজন কার্যত বানচাল হয়েছে।

এ দিন সার্ক বৈঠকে ভারতের বিদেশমন্ত্রী জয়শংকর বলেন, ‘গত ৩৫ বছরে সার্ক উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি করেছে। কিন্তু আমাদের সম্মিলিত উদ্যোগ এবং সমৃদ্ধি সন্ত্রাস ও জাতীয় সুরক্ষা বিঘ্নিত হওয়ায় বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।’ 

যদিও তিনি কোনও নামোল্লেখ করেননি, তবু জয়শংকর যে পাকিস্তানের উদ্দেশেই বিষোদ্গার করেছেন, তা স্পষ্ট। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এর আগে বহু বার সীমান্ত সন্ত্রাসে মদত, বিশেষ করে জন্মু ও কাশ্মীর বিষয়ে অবাঞ্ছিত হস্তক্ষেপ সম্পর্কে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে অভিযোগ জানিয়েছে দিল্লি। চলতি বছরের গোড়ায় ভারত যখন সার্ক রাষ্ট্রগুলির সহায়তায় বিশেষ Covid-19 তহবিল গড়ার উদ্যোগ নেয়, তখন সেই তহবিল সার্ক সচিবালয়ের অধীনে রাখার আবেদন জানায় পাকিস্তান।

এ দিন বিদেশমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথমে প্রতিবেশী অঞ্চল’ নীতিতে গুরুত্ব আরোপ এবং সেই সঙ্গে সমগ্র দক্ষিণ এশিয়ায় সংযুক্ত, নিরাপদ ও সমৃদ্ধির বিকাশে বরাবরই প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ভারত। একই সঙ্গে, ১০০ কোটি ডলার মূল্যের আপৎকালীন তহবিল গড়া, প্রয়োজনীয় ওষুধ সরবরাহ, চিকিৎসা ব্যবস্থা, টেস্টিং কিট সরবরাহ-সহ কোভিড সংক্রান্ত সহায়তামূলক পদক্ষেপে ভারতের উদ্যোগ ও অবদানের কথাও স্মরণ করিয়ে দেন জয়শংকর। 

সেই সঙ্গে তিনি জানান, অতিমারীর মোকাবিলায় ভারতের উদ্যোগে Covid-19 তথ্য আদানপ্রদানের মঞ্চের সুবাদে (COINEX) সার্ক-এর বিপর্যয় মোকাবিলা কেন্দ্র কোভিড সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য সংবলিত ওয়েবসাইট তৈরি করেছে। পাশাপাশি, সক্রিয় করা হয়েছে সার্ক খাদ্য ব্যাঙ্ক পরিষেবা। 

তিনি জানান, ‘বিদেশে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া দেশবাসীকে উদ্ধার করে আনার সময় আমাদের বিমান ও হৃদয়ে প্রতিবেশীদের জন্যও স্থান ছিল।’

এই প্রসঙ্গে তিনি মলদ্বীপকে ১৫০০ কোটি ডলার বিদেশি মুদ্রা আদানপ্রদানের সুবিধা দেওয়া এবং শ্রী লঙ্কাকে এই খাতে ৪,০০০ কোটি ডলার সাহায্যের কথাও উল্লেখ করেন।

বন্ধ করুন