বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মসজিদে উড়ছে গেরুয়া পতাকা, চাঞ্চল্য কর্ণাটকে
উভয় সম্প্রদায়ের মানুষই এলাকায় শান্তি ফেরাতে তৎপর। (ANI) (HT_PRINT)
উভয় সম্প্রদায়ের মানুষই এলাকায় শান্তি ফেরাতে তৎপর। (ANI) (HT_PRINT)

মসজিদে উড়ছে গেরুয়া পতাকা, চাঞ্চল্য কর্ণাটকে

  • জেলা পুলিশের মতে ভোরবেলার দিকে এই পতাকা তোলা হয়েছিল। এদিকে একাধিক হিন্দুত্ববাদী সংগঠন ইতিমধ্যেই উসকানিমূলক কার্যকলাপ শুরু করেছে বলেও অভিযোগ। এমনকী মাইকে আজান দেওয়া হল মসজিদের সামনে হিন্দুতে ভক্তিমূলক গান বাজানো হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়েছে।

বেঙ্গালুরু থেকে জায়গাটা প্রায় ৫০০ কিমি দূরে। সেই বেলাগাভি এলাকায় একটি মসজিদে গেরুয়া পতাকা তুলে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এনিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগও দায়ের হয়েছে।  বেলাগাভি গ্রামীণ জেলার পুলিশ সুপার লক্ষণ নিমবার্গি জানিয়েছেন, একটি মামলা করা হয়েছে। অজ্ঞাত পরিচয় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এফআইআরও করা হয়েছে। তবে কাউকে সেভাবে চিহ্নিত করা যায়নি।

এদিকে সূত্রের খবর, স্থানীয় সত্তাগি মাড্ডি মসজিদে একটি গেরুয়া পতাকা গোপনে তুলে দেয় দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় সাম্প্রদায়িক অশান্তি ছড়াতে পারত। তবে দ্রুত হিন্দু ও মুসলিম উভয় সম্প্রদায়ের মানুষরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে।

জেলা পুলিশের মতে ভোরবেলার দিকে এই পতাকা তোলা হয়েছিল। এদিকে একাধিক হিন্দুত্ববাদী সংগঠন ইতিমধ্যেই উসকানিমূলক কার্যকলাপ শুরু করেছে বলেও অভিযোগ। এমনকী মাইকে আজান দেওয়া হলে মসজিদের সামনে হিন্দুদের ভক্তিমূলক গান বাজানো হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে যারা লাউডস্পিকার ব্যবহার করতে চাইছেন তাদের অনুমতি নিতে হবে বলেও কর্ণাটক সরকারের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

কর্ণাটকের মন্ত্রী আরাগা জ্ঞানেন্দ্র জানিয়েছেন, রাত ১০টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত লাউডস্পিকার ব্যবহারের কোনও অনুমতি নেই। কেউ যদি সেই নিয়ম না মানেন তবে প্রশাসন সেই মাইক খুলে নেবে। এনিয়ে চার্চ, মসজিদ, মন্দিরের মধ্যে কোনও বিভেদ নেই।

বন্ধ করুন