বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সারোগেসির মাধ্যমে বাচ্চা নিতে পারবেন সমকারী দম্পতিরা, রায় কার্যকর হল এই দেশে
সারোগেসির মাধ্যমে বাচ্চা নিতে পারবেন সমকারী দম্পতিরা, রায় কার্যকর হল এই দেশে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে এরিয়েল শ্যালিত/এপি/পিকচার অ্যালায়েন্স/ডয়চে ভেলে)
সারোগেসির মাধ্যমে বাচ্চা নিতে পারবেন সমকারী দম্পতিরা, রায় কার্যকর হল এই দেশে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে এরিয়েল শ্যালিত/এপি/পিকচার অ্যালায়েন্স/ডয়চে ভেলে)

সারোগেসির মাধ্যমে বাচ্চা নিতে পারবেন সমকারী দম্পতিরা, রায় কার্যকর হল এই দেশে

  • ভারতের ‘বন্ধু’ দেশে এই নিয়ম কার্যকর হয়েছে।

যুগান্তকারী রায় দিয়েছিল ইজরায়েলের সুপ্রিম কোর্ট। যা বুধবার থেকে কার্যকর হয়েছে। তার ফলে সমকামীরাও এবার সারোগেসির মাধ্যমে বাচ্চা নিতে পারবেন।

ছয় মাস আগেই এ বিষয়ে রায় দিয়েছিল ইজরায়েলের আদালত। তবে রায় কার্যকর করতে ছয় মাস সময় চাওয়া হয়েছিল। বুধবার থেকে তা কার্যকর হল।

আগে শুধুমাত্র স্বামী-স্ত্রী'র যৌথ ইচ্ছায় সারোগেসি করা যেত ইজরায়েলে। একক মায়েরাও সারোগেসি করতে পারতেন। কিন্তু সমকামী, ট্রান্সজেন্ডাররা এই সুযোগ থেকে বঞ্চিত ছিলেন। নতুন রায়ে সকলেই চাইলে সারোগেসির মাধ্যমে বাচ্চা নিতে পারবেন।

দীর্ঘদিন ধরেই ইজরায়েলে এলজিবিটিকিউ কমিউনিটি শক্তিশালী। বহু গুরুত্বপূর্ণ আন্দোলন করেছে তারা। মধ্য প্রাচ্যে এলজিবিটিকিউ অধিকারের দিক থেকে ইজরায়েলে সবচেয়ে এগিয়ে। এই পরিস্থিতিতে সুপ্রিম কোর্টের নতুন রায়ে খুশি দেশের এলজিবিটিকিউ কমিউনিটি। তাদের বক্তব্য, দীর্ঘদিন ধরে এই অধিকারের জন্য তারা লড়াই করছিলেন। শেষপর্যন্ত তা আইনসিদ্ধ হল।

এর আগে ফ্রান্সেও সমকামী এবং একক নারীদের জন্য সন্তান নেওয়ার অধিকার বৈধ করা হয়েছিল। তবে সারোগেসির কথা সেখানে উল্লেখ করা ছিল না। ইজরায়েলে সরাসরি সারোগেসির কথাই উল্লেখ করা হয়েছে।

সারোগেসির অর্থ, অন্য নারীর শরীর সন্তান ধারণের জন্য ব্যবহার করা। আইভিএফ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এ কাজ করা হয়ে থাকে। বিশ্বের বহু দেশেই সারোগেসি নিষিদ্ধ। তবে পশ্চিমী দেশগুলিতে দীর্ঘদিন ধরেই সারোগেসির চল আছে।

বন্ধ করুন