বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সারদাকাণ্ডে মুম্বইয়ে তিন সেবি কর্তার অফিস-বাসভবনে অভিযান CBI-র
সারদাকাণ্ডে মুম্বইয়ে তিন সেবি কর্তার অফিস-বাসভবনে অভিযান CBI-র। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
সারদাকাণ্ডে মুম্বইয়ে তিন সেবি কর্তার অফিস-বাসভবনে অভিযান CBI-র। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

সারদাকাণ্ডে মুম্বইয়ে তিন সেবি কর্তার অফিস-বাসভবনে অভিযান CBI-র

  • মুম্বইয়ের ছ'টি জায়গায় অভিযান চালাচ্ছে সিবিআই।

সারদাকাণ্ডে মুম্বইয়ের ছ'টি জায়গায় অভিযান চালাচ্ছে সিবিআই। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সূত্রে খবর, বাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থার সেবির (সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ বোর্ড অফ ইন্ডিয়া) তিন শীর্ষকর্তার অফিস এবং বাসভবনেও তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

সোমবার সকালে বান্দ্রায় বান্দ্রা-কুরলা কমপ্লেক্সে সেবি অফিসে যায় সিবিআইয়ের একটি দল।সিবিআই আধিকারিকরা জানিয়েছেন, ২০০৯ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত সেবির ওই তিন শীর্ষকর্তা কলকাতায় ছিলেন। আপাতত তাঁরা মুম্বইয়ে কর্মরত। ২০১৩ সাল থেকেই সারদাকাণ্ডের বিষয়টি সামনে শুরু করে। সেই বছর এপ্রিলে সারদার কর্ণধার সুদীপ্ত সেন এবং দেবযানী মুখোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে সিবিআইয়ের একটি দল। 

কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সূত্রে খবর, ‘সেবির তিন শীর্ষকর্তা-সহ মুম্বইয়ের ছ'টি জায়গায় সিবিআইয়ের অভিযান চলছে। অভিযুক্ত তিন কর্তা সারদা চিটফান্ডকাণ্ডে জড়িত ছিলেন বলে জানা দিয়েছে।’ তবে আপাতত তাঁদের পরিচয় বা অন্য কোনও তথ্য জানানো হয়নি। তল্লাশি অভিযানের পর বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে বলে সিবিআই সূত্রে খবর।

পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা ভোটের আবহে সারদা মামলা নিয়ে তৎপরতা শুরু হয়েছে। গত সপ্তাহে সারদা মামলায় দুই তৃণমূল কংগ্রেস নেতা মদন মিত্র এবং বিবেক গুপ্তকে তলব করেছিল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। সেইসঙ্গে প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ আহমেদ হাসান ইমরান, দুই প্রাক্তন আইপিএস অফিসার রজত মজুমদার এবং সুরজিৎ কর পুরকায়স্থকে তলব করা হয়েছে। তার আগে তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষকেও ডাকা হয়েছিল।

বন্ধ করুন