বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > করোনায় জাঁকজমক কমলেও খামতি নেই উন্মাদনায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে হল সরস্বতী পুজো

করোনায় জাঁকজমক কমলেও খামতি নেই উন্মাদনায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে হল সরস্বতী পুজো

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের সরস্বতী পুজো। (ছবি সৌজন্যে, ফেসবুক Susmita Sarker)

মহামারীর আগে প্রতি বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলে একাধিক সরস্বতী পুজো মণ্ডপ হত।

করোনাভাইরাসের দাপটে জাঁকজমক কম ছিল। তবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের বিখ্যাত সরস্বতী পুজোয় উন্মাদনা এবং ভক্তির কোনও অভাব হল না। সরস্বতী পুজো উপলক্ষ্যে শনিবার জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে প্রচুর মানুষ জগন্নাথ হলে আসেন। মেতে ওঠেন উৎসবে।

এমনিতে মহামারীর আগে প্রতি বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলে একাধিক সরস্বতী পুজো মণ্ডপ হত। সেই সংখ্যাটা নেহাত কম ছিল না। ৮০ টির আশপাশে মণ্ডপ থাকত। বিভিন্ন বিভাগ এবং ইনস্টিটিউটের তরফে পৃথকভাবে পুজোর আয়োজন করা হত। কিন্তু করোনাভাইরাসের ধাক্কায় এবার একটি কেন্দ্রীয় পুজো হয়েছে। পুজো কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. মিহিরলাল সাহা জানান, করোনা পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয়ভাবে একটি পুজো আয়োজনের পক্ষে ছিল পুলিশ-প্রশাসন। পড়ুয়ারাও সহমত পোষণ করেন। 

সেইমতো করোনা বিধি মেনে পুজোর আয়োজন করা হয়। সেই পুজো ঘিরে পড়ুয়া এবং আমজনতার উন্মাদনা চোখে পড়ার মতো ছিল। সকাল থেকে শাড়ি এবং পঞ্জাবি পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের উপাসনালয়ে আসতে থাকেন পড়ুয়ারা। আসেন অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী এবং আমজনতা। তবে জগন্নাথ হলে অনেকের মুখেই মাস্ক ছিল না। সামাজিক দূরত্ববিধিও সেভাবে পালন করা হয়নি।

তারইমধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের ঐতিহ্যবাহী ছাড়াও সরস্বতী পুজো উপলক্ষ্যে সেজে ওঠে পুরনো ঢাকার বিভিন্ন প্রান্ত। করোনাবিধি মেনে সেখানেও স্বল্প পরিসরে পুজোর আয়োজন করা হয়। দেবী সরস্বতী পূজিত হন ঢাকেশ্বরী মন্দির, রাজারবাগ কালী মন্দির, রমনা কালী মন্দির এবং জাতীয় প্রেস ক্লাবে। সেখানেও প্রচুর দর্শনার্থীর সমাগম হয়।

বন্ধ করুন