বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'গোয়া সরকারে সবেতে দুর্নীতি, তাই আমাকে সরানো হয়', সত্যপালের দাবিতে চাপে প্রমোদ
মেঘালয়ার রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক (ফাইল ছবি) (HT_PRINT)
মেঘালয়ার রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক (ফাইল ছবি) (HT_PRINT)

'গোয়া সরকারে সবেতে দুর্নীতি, তাই আমাকে সরানো হয়', সত্যপালের দাবিতে চাপে প্রমোদ

  • গোয়া সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে গোয়ার রাজনীতিতে ঝড় তুলেছেন রাজ্যের প্রাক্তন রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক।

গোয়ার বিজেপি সরকারকে চরম অস্বস্তিতে ফেললেন সেরাজ্যের প্রাক্তন রাজ্যপাল তথা মেঘালয়ের বর্তমান রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক। সরাসরি গোয়া সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে গোয়ার রাজনীতিতে ঝড় তুলেছেন তিনি। গতকাল ইন্ডিয়া টুডে-কে দেওয়া এখ সাক্ষাতকারে একের পর এক বিস্ফোরক দাবি করেন সত্যপাল মালিক।

সত্যপাল মালিক বলেন, 'আমি লোহিয়া সম্প্রদায়ের একজন। দুর্নীতির কথা এলে আমি খুব রেগে যাই। আমি এটাকে সদয় চোখে দেখি না। যেদিন লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল, সরকার বলেছিল যে মৌলিক প্রয়োজনীয় জিনিস বিক্রির দোকানগুলিও খোলার অনুমতি দেওয়া হবে না তবে তারা তা ঘরে ঘরে সরবরাহ করবে। যা অসম্ভব ছিল, কিন্তু একটি কোম্পানি ছিল যে টাকা দিয়েছিল। তারপর কংগ্রেসের লোকেরা, অন্যরা আমার কাছে এসে আমাকে এই বিষয়ে বলেছিল। তাই প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছি।'

সত্যপাল মালিকের কথায়, 'গোয়া সরকারের সবকিছু সামলানোর ক্ষেত্রেই দুর্নীতি ছিল। সেই কারণেই আমাকে সেখান থেকে বিদায় করা হয়েছিল।' তাঁর সাক্ষাত্কারে, মালিক প্রমোদ সাওয়ান্তের লকডাউন পরিচালনার বিষয়ে বেশ কিছু প্রশ্ন তোলেন। পাশাপাশি তিনি দাবি করেন, গোয়ায় একটি নতুন রাজভবন তৈরির বিষয়ে সাওয়ান্ত সরকারের 'অপ্রয়োজনীয়' পরিকল্পনার বিরুদ্ধে কথা বলেছিলেন।

এদিকে এই সব অভিযোগের প্রেক্ষিতে মুখ খোলেননি মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত। তবে দলের তরফে গোয়ার রাজ্য বিজেপি সভাপতি সদানন্দ শেত বলেন, 'সত্যপাল মালিক ভুল বক্তব্য পেশ করেছেন। আমরা কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের নজরে আনব বিষয়টা।' এদিকে গোয়ার বিরোধী দলগুলি প্রমোদ সাওয়ান্তের পদত্যাগের দাবি তুলেছে। কংগ্রেস নেতা এবং বিধানসভায় বিরোধী দলের নেতা দিগম্বর কামাত বলেন যে রাজ্যপালের অভিযোগের পরে সাওয়ান্তের সরকার চালিয়ে যাওয়ার কোনও নৈতিক অধিকার নেই।

বন্ধ করুন