বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > গো মূত্র নিয়ে ফেসবুক পোস্ট: ধৃত সমাজকর্মীকে মুক্তি দেওয়ার নির্দেশ SC-র
সুপ্রিম কোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)
সুপ্রিম কোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)

গো মূত্র নিয়ে ফেসবুক পোস্ট: ধৃত সমাজকর্মীকে মুক্তি দেওয়ার নির্দেশ SC-র

ওই সমাজকর্মী বলেছিলেন, ‘‌গোবর ও গোমূত্রে করোনার চিকিৎসা হয় না'।জাতীয় সুরক্ষা আইনের মামলাও করা হয়।

‌গো মূত্র নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন। এরপরই জাতীয় সুরক্ষা আইন নিয়ে মামলা করা হয় মণিপুরের সমাজকর্মী এরেন্দ্রো লেচোম্বামকে। গ্রেফতার করা হয় তাঁকে। মামলা গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত। শেষপর্যন্ত সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশে মুক্তি পেলেন এই সমাজকর্মী।

এদিন মামলার শুনানিতে বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় মণিপুর সেন্ট্রাল জেলকে নির্দেশ দেন, এদিন যাতে বিকেল ৫টার মধ্যে তাঁকে মুক্তি দেওয়া হয়। বিচারপতি এদিন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আবেদনকারীকে বন্দি রাখার অর্থ হল মৌলিক অধিকার ক্ষুণ্ণ করা। তাই তাঁকে ১,০০০ টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে মুক্তি দেওয়া হল। এদিন অবশ্য সলিসিটর জেনারেল তু্ষার মেহতা আদালতে এই বিষয়ে শুনানির জন্য মঙ্গলবার সময় চান। কিন্তু বিচারপতি চন্দ্রচূড় জানিয়ে দেন, 'আমরা একদিনের জন্য এই ব্যক্তিকে বন্দি রাখতে পারি না।'

বিজেপির মণিপুরের সভাপতি এস টিকেন্দ্র সিংয়ের করোনায় মৃত্যু হয়েছিল। সেই মৃত্যুর পরই ফেসবুকে একটি পোস্ট করেন সমাজকর্মী এরেন্দ্রো। ফেসবুকে তিনি লেখেন, ‘‌গোবর ও গোমূত্রে করোনার চিকিৎসা হয় না। সাধারণ জ্ঞান ও বিজ্ঞানেই করোনা নির্মূল হয়। শান্তিতে ঘুমোন প্রফেসর জি।’‌ এই ফেসবুক পোস্ট দেখে এরেন্দ্রো ও এক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁদের গ্রেফতার করা হয়। গত মে মাসেই তাঁদের গ্রেফতার করা হয়। মে ও জুন মাস জুড়ে বন্দিই ছিলেন তাঁরা।

বন্ধ করুন