বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'যুদ্ধও নেই, শান্তিও নেই', থমথমে পূর্ব লাদাখের পরিস্থিতি, বললেন বায়ুসেনা প্রধান
বায়ুসেনার প্রধান
বায়ুসেনার প্রধান

'যুদ্ধও নেই, শান্তিও নেই', থমথমে পূর্ব লাদাখের পরিস্থিতি, বললেন বায়ুসেনা প্রধান

মে মাস থেকে এখানে অচলাবস্থা চলছে ভারত-চিনের মধ্যে। 

পূর্ব লাদাখে বর্তমান পরিস্থিতি মেনে নিলেন বায়ুসেনা প্রধান আরকেএস ভাদুরিয়া। এয়ার চিফ মার্শাল বলেন বর্তমানে পরিস্থিতি থমথমে। না আছে শান্তি, না হচ্ছে যুদ্ধ। গত কয়েক মাস ধরে লাদাখে যেভাবে চিনের সঙ্গে অশান্তি চলছে, সেই প্রসঙ্গে এই কথা বললেন তিনি। 

একটি কনফারেন্সে বায়ুসেনা প্রধান বলেন যে বিমান বাহিনী খুব দ্রুততার সঙ্গে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। কোনও রকমের বেগড়বাই রুখতে তারা যে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ সেই কথাও জানান তিনি। যে কোনও পরিস্থতির সঙ্গে মোকাবিলা করার জন্য তাঁরা প্রস্তুত, বলেন ভাদুরিয়া। 

তিনি বলেন হালে বিমান বাহিনীর কাছে এসেছে রাফাল জেট। এর আগে যে  C-17 গ্লোবমাস্টার এয়ারক্রাফট এসেছিল, সেগুলি ও চিনুক এবং অ্যাপাচে হেলিকপ্টার নিশ্চিত ভাবেই বিমান বাহিনীর হাত শক্ত করেছে। 

ভবিষ্যতে কোনও ঝামেলা লাগলে বায়ু শক্তি যে বিজয় প্রাপ্ত করার ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা নেবে, সেটা জানান তিনি। ভাদুরিয়া বলেন যে এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ যে প্রযুক্তিগত ভাবে শত্রুপক্ষের থেকে ভালো সরঞ্জাম যেন থাকে ইন্ডিয়ান এয়ারফোর্সের কাছে। 

১০ সেপ্টেম্বর পাঁচটি রাফাল এসেছে ভারতের কাছে। গত দুই সপ্তাহে পূর্ব লাদাখের আকাশে চক্কর কেটেছে এই ফ্রান্স থেকে আসা যুদ্ধবিমান। যেভাবে অল্প সময় তেজসের দুটি স্কোয়াড্রন তৈরী হয়েছে ও Su-30 MKI জেটে কিছু দেশীয় অস্ত্র যুক্ত করা হয়েছে, সেটি খুবই ইতিবাচক বলে জানান তিনি। 

পূর্ব লাদাখে গালওয়ানে ১৫ জুন রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ১৫ ভারতীয় ও অজানা সংখ্যক চিনা সেনার মৃত্যু হয়। তারপর ২৯-৩০ অগস্ট প্যাংগং লেকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ পজিশন দখল করে ভারত। তখন থেকেই অচলাবস্থা চলছে। কয়েকবার গুলি চলেছে ওই অঞ্চলে প্রায় চার দশক ধরে। দুই পক্ষের সেনাই আসন্ন শীতের প্রস্তুতি নিচ্ছে। 

 

বন্ধ করুন