বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সীমান্তে সংঘাত বন্ধ করতে বাফার জোন তৈরি হোক, পরামর্শ অবসরপ্রাপ্ত চিনা সেনাকর্তার
মঙ্গলবার ২০ জন শহীদকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে ভারতীয় সেনার ফায়ার অ্যান্ড ফিউরি কর্পস। ছবি : এএনআই  (ANI Photo)
মঙ্গলবার ২০ জন শহীদকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে ভারতীয় সেনার ফায়ার অ্যান্ড ফিউরি কর্পস। ছবি : এএনআই  (ANI Photo)

সীমান্তে সংঘাত বন্ধ করতে বাফার জোন তৈরি হোক, পরামর্শ অবসরপ্রাপ্ত চিনা সেনাকর্তার

  • যদিও ইতিমধ্যেই একটি অলিখিত বাফার জোন তৈরী করেছে দুই দেশের সেনা।

চিন-ভারত সংঘাত বন্ধ করতে বাফার জোন তৈরি করা উচিত্। গালওয়ান সংঘর্ষের ১ বছর পর এমনই পদক্ষেপ করা উচিত্ দুই দেশের। এমনই পরামর্শ দিলেন চিনের পিপলস লিবারেশন আর্মির অবসরপ্রাপ্ত সেনাকর্তা ঝোউ বোয়ের।

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে এমনটাই জানিয়েছেন চিনের সেনাকর্তা। বাফার জোন তৈরির মাধ্যমে দুই দেশের সেনার মধ্যে নিয়ন্ত্রণরেখায় শান্তি ফেরানো সম্ভব বলে মত তাঁর।

যদিও ইতিমধ্যেই একটি অলিখিত বাফার জোন তৈরি করেছে দুই দেশের সেনা। গত বছর ভারত ও চিনের সেনার প্রতিনিধিরা আলোচনায় বসে। তারপর ফেব্রুয়ারি মাসে দুই পক্ষই তার সেনা পিছিয়ে নেওয়া হচ্ছে বলে জানায়। প্যাংগং লেকের উত্তর ও দক্ষিণ প্রান্ত ধরে সশস্ত্র বাহিনী পিছিয়ে নেয় দুই দেশ।

গালওয়ানে চিন-ভারত সংঘর্ষের এক বছর স্মরণ করেই এই প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ঝোউ বো বলেন, 'দুই দেশেরই এই এক বছরের সম্পূর্ণ পরিস্থিতির পর্যালোচনা করা উচিত্। তার ভিত্তিতে ভবিষ্যতের শান্তি প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা করা প্রয়োজন। আমার বিশ্বাস বাফার জোন তৈরি করে সেই প্রক্রিয়া দ্রুততর করা সম্ভব।'

গত বছর গালওয়ান সংঘাতে ভারতের ২০ জন সেনা প্রাণ হারান। উলটোদিকে চিন দাবি করে যে তাদের ৪ জন সেনার মৃত্যু হয়েছে। যদিও ভারতীয় সেনা সূত্রে জানা যায়, চিনের হতাহতের সংখ্যা এর চেয়ে অনেক বেশি। এরপরেই ক্রমেই সীমান্তে বেড়েছে উত্তেজনা। তারই মধ্যে ভারতের এলাকা দখলদারি, নিয়ন্ত্রণরেখায় সশস্ত্র বাহিনী প্রবেশের মতো একাধিক অভিযোগ উঠেছে চিনের বিরুদ্ধে।

বন্ধ করুন