বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > এক ট্রেনেই সেবক থেকে সিকিম,তৈরি হচ্ছে ১৪টি টানেল, পর্যটনে নয়া দিশা, কতটা কাজ হল?
এক ট্রেনেই সেবক থেকে সিকিম যাওয়া যাবে।  (সংগৃহীত)

এক ট্রেনেই সেবক থেকে সিকিম,তৈরি হচ্ছে ১৪টি টানেল, পর্যটনে নয়া দিশা, কতটা কাজ হল?

  • শনিবার সেই পাথরে ব্লাস্ট করে টানেল তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। উত্তর পূর্ব রেলের প্রজেক্ট ডিরেক্টর এই রেলটানেলের কাজের সূচনা করেন। প্রজেক্ট ডিরেক্টর মহেন্দ্র সিং জানিয়েছেন, টানেল তৈরির কাজ এগোচ্ছে। পদস্থ আধিকারিকরাও হাজির ছিলেন এই অনুষ্ঠানে। 

সেবক থেকে সিকিম পর্যন্ত এবার যাওয়া যাবে এক ট্রেনেই। পর্যটন ও ব্যবসায়ীক যোগাযোগের ক্ষেত্রে এবার বড় দিশা। সূত্রের খবর, রেলের লাইন পাতার কাজ এখনও বাকি। তবে ২০২৩এর মধ্যে সেবক থেকে সিকিমের মধ্যে ১৪টি টানেল তৈরির কাজ শেষ করার চেষ্টা করা হচ্ছে।তারপর সেই রেলপথেই চলবে ট্রেন। 

জোরকদমে কাজ চলছে। রেল সূত্রে খবর, গোটা রেলপথের বেশিরভাগ অংশেই পাহাড় রয়েছে। সেই পাহাড় কেটে সুরঙ্গ তৈরি করে তার ভেতর দিয়ে রেললাইন পাতা হবে। ইতিমধ্যেই তার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। সুড়ঙ্গের মধ্যে দিয়েই চলবে রেল। অন্তত ১৪টি সুরঙ্গ তৈরি হচ্ছে। দার্জিলিং হয়ে এই রেলপথ চলে যাবে সিকিম। শনিবার দার্জিলিংয়ের রম্ভি থানার অন্তর্গত লোহাপুলের কাছে এই টানেলের উদ্বোধন হয়েছে। সামনেই বড় পাথরের চাঁই। সেই পাথরের চাঁইকে বিস্ফোরণ করে ফাটিয়ে রেল টানেল তৈরি করা হচ্ছে।

শনিবার সেই পাথরে ব্লাস্ট করে টানেল তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। উত্তর পূর্ব রেলের প্রজেক্ট ডিরেক্টর এই রেলটানেলের কাজের সূচনা করেন। প্রজেক্ট ডিরেক্টর মহেন্দ্র সিং জানিয়েছেন, টানেল তৈরির কাজ এগোচ্ছে। পদস্থ আধিকারিকরাও হাজির ছিলেন এই অনুষ্ঠানে। তাঁরা জানিয়েছেন, একেবারে উন্নত প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে এই টানেল তৈরি হচ্ছে।

বন্ধ করুন