বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Sheikh Hasina on Bangladeshi Economy: শ্রীলঙ্কার হাল হবে বাংলাদেশেরও? সংকটে থাকা অর্থনীতি নিয়ে যা বললেন শেখ হাসিনা
শেখ হাসিনা  (AP)

Sheikh Hasina on Bangladeshi Economy: শ্রীলঙ্কার হাল হবে বাংলাদেশেরও? সংকটে থাকা অর্থনীতি নিয়ে যা বললেন শেখ হাসিনা

  • হাসিনা বলেন, ‘আমাদের অর্থনীতির উন্নয়ন কীভাবে হবে, আর জনগণের উপকার কীভাবে হবে, এটাই আমাদের অগ্রাধিকার। তাই সেভাবেই আমরা সব পরিকল্পনা করি এবং কর্মসূচি গ্রহণ করি। অপ্রয়োজনে আমরা কোনও টাকা খরচ করি না।’

করোনা এবং ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থা বেশ খারাপ। এই আবহে বাংলাদেশের পরিস্থিতিও শ্রীলঙ্কার মতো হবে কি না, তা নিয়ে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। তবে এই বিষয়ে এবার দেশবাসীকে অভয় প্রদান করলেন খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। হাসিনা দাবি করেন, তাঁর দেশের অর্থনীতি এখনও মজবুত রয়েছে এবং তাঁর শাসনব্যবস্থায় কোনও ঋণ নেওয়ার সময় অনেক কিছু খতিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমাদের অর্থনীতি এখনও অনেক শক্তিশালী। যদিও আমরা এই কোভিড-১৯ মহামারীর মুখোমুখি হয়েছি। এখন আবার ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ চলছে। এখানেও তার প্রভাব পড়ছে। কিন্তু ঋণ নেওয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সচেতন। সবসময় সময়মতো সব ঋণ পরিশোধ করে আমার দেশ। তাই আমাদের ঋণের হার খুবই কম। শ্রীলঙ্কার তুলনায় আমাদের অর্থনীতির গতিপথ এবং উন্নয়নের ধারা পরিকল্পিত।’

হাসিনা দৃঢ়তার সাথে বলেন যে তাদের সচেতনতার কারণেই তাঁর দেশ অর্থনৈতিক দিক দিয়ে এখনও নিরাপদ আছে। তিনি বলেন, গৃহীত প্রকল্প থেকে যদি দেশ লাভবান না হয়, তবে নিশ্চিত ভাবে বাংলাদেশ সেই প্রেক্ষিতে কোনও ঋণ নেয় না। তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনে করি পুরো বিশ্ব অর্থনৈতিক সমস্যার সম্মুখীন। আমরাও। তবে হ্যাঁ কিছু লোক আছে যারা এই বিষয়টি নেতিবাচক ভাবে উত্থাপন করে। বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হয়ে যাবে, এটা ওটা অনেক কিছু বলা হয়। তবে আমি নিশ্চিত করতে পারি – না! তা হবে না। কারণ আমরা আমাদের যেসকল উন্নয়নমূলক পরিকল্পনা আমরা প্রণয়ন করি এবং বাস্তবায়ন করি, তাতে আমরা সব সময়ই দেখি যে আমাদের কি লাভ হচ্ছে? মানুষ কীভাবে সুবিধাভোগী হবে? তা না হলে, আমি শুধু টাকা খরচ করে কোনও প্রোজেক্ট করাই না।’ হাসিনা বলেন, ‘আমাদের অর্থনীতির উন্নয়ন কীভাবে হবে, আর জনগণের উপকার কীভাবে হবে, এটাই আমাদের অগ্রাধিকার। তাই সেভাবেই আমরা সব পরিকল্পনা করি এবং কর্মসূচি গ্রহণ করি। অপ্রয়োজনে আমরা কোনও টাকা খরচ করি না।’

বন্ধ করুন