বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > WhatsApp এর বিকল্প হিসেবে Signal এর চাহিদা বাড়ছে, অ্যাপ ডাউনলোডে নতুন রেকর্ড
গত কয়েক দিনে হোয়াটসঅ্যাপ-এর বিকল্প হিসেবে সিগন্যাল অ্যাপ ডাউনলোড করার হিড়িক দেখা দিয়েছে।
গত কয়েক দিনে হোয়াটসঅ্যাপ-এর বিকল্প হিসেবে সিগন্যাল অ্যাপ ডাউনলোড করার হিড়িক দেখা দিয়েছে।

WhatsApp এর বিকল্প হিসেবে Signal এর চাহিদা বাড়ছে, অ্যাপ ডাউনলোডে নতুন রেকর্ড

  • হোয়াটসঅ্যাপ-এর বিকল্প হিসেবে সিগন্যাল অ্যাপ ডাউনলোড করার হিড়িক দেখা দিয়েছে ইউজারদের মধ্যে।

হোয়াটসঅ্যাপ-এর (WhastApp) গোপনীয়তা নীতি পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে বিকল্প মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হিসেবে লাফিয়ে কদর বাড়তে শুরু করেছে আর এক এনক্রিপ্টেড মেসেজিং সার্ভিস ‘সিগন্যাল’-এর (Signal)। 

গত কয়েক দিনে হোয়াটসঅ্যাপ-এর বিকল্প হিসেবে সিগন্যাল অ্যাপ ডাউনলোড করার হিড়িক দেখা দিয়েছে ইউজারদের মধ্যে। টুইটারে নিজস্ব হ্যান্ডেলে সে কথা স্বীকার করেছে সিগন্যাল কর্তৃপক্ষ। সেই সঙ্গে অ্যাপটি iOSapp স্টোরে এক নম্বর র‍্যাঙ্কিং-এ পৌঁছে যাওয়ার কথাও জানিয়েছে সংস্থা। 

চলতি সপ্তাহের গোড়ায় ইউজারদের নোটিফিকেশন পাঠিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ তার পরিষেবা সংক্রান্ত শর্তাবলী ও গোপনীয়তা রক্ষা নীতিতে পরিবর্তনের কথা জানায়। জানানো হয়, ইউজারদের থেকে সংগৃহীত তথ্য ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে অভিভাবক সংস্থা ফেসবুক-এর সঙ্গে শেয়ার করবে হোয়াটসঅ্যাপ। তবে সংস্থার তরফে জানানো হয়, এই প্রক্রিয়ায় ইউজারদের কোনও মেসেজ বা কন্টেন্টই সংরক্ষিত হবে না। 

হোয়াটসঅ্যাপ-এর এই ঘোষণায় সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কের ঝড় উঠেছে। অনেকেই ইউজারদের গোপন তথ্য ফাঁসের আশঙ্কায় আঙুল তুলছেন মার্ক জুকেরবার্গের মালিকানাধীন ফেসবুক ও তার অধীনস্থ হোয়াটসঅ্যাপ-এর দিকে। 

এই পরিস্থিতিতে ইউজারদের মধ্যে বিকল্প এনক্রিপ্টেড মেসেজিং প্ল্যাটফর্মের সন্ধান শুরু হয়, যার পুরোপুরি সদ্ব্যবহার করেছেন টেসলা (Tesla) কর্ণধার এলন মাস্ক। হোয়াটসঅ্যাপ-এর ঘোষণার পরেই তিনি টুইটারে নিজের সংস্থার তৈরি সিগন্যাল অ্যাপ ব্যবহার করার জন্য প্রচার শুরু করেছেন। মাস্কের দাবি, হোয়াটসঅ্যাপ-এর মতোই সিগন্যাল অ্যাপ ব্যবহার করে মেসেজ করা যায় এবং গ্রাহকদের গোপনীয়তা রক্ষার স্বার্থে এই অ্যাপে মেসেজ বা কন্টেন্ট সংরক্ষণের কোনও ব্যবস্থাই রাখা হয়নি। 

এলন মাস্কের ঘোষণার পরে রাতারাতি সিগন্যাল অ্যাপ ডাউনলোড করার হার কয়েক গুণ বেড়ে গিয়েছে। নির্মাতা সিগন্যাল ফাউন্ডেশন-এর অন্যতম অংশীদার ছিলেন হোয়াটসঅ্যাপ-এর প্রাক্তন কর্মী ব্রায়েন অ্যাকটন। যদিও ২০১৭ সালে তিনি সিগন্যাল ফাউন্ডেশন ছেড়ে যান।  

মাস্ক জানিয়েছেন, সিগন্যাল অ্যাপ-এ হোয়াটসঅ্যাপ-এর মতোই ফিচার্স রয়েছে। তবে এই অ্যাপে গুগল ড্রাইভ (Google Drive) বা আইক্লাউড-এ (iCloud) চ্যাট-এর ব্যাক আপ সংরক্ষণ করার ব্যবস্থা নেই। তা ছাড়া, সিগন্যাল অ্যাপে কারও অনুমতি ছাড়া কোনও গ্রুপে অ্যাড করার ব্যবস্থাও নেই। 

সেই সঙ্গে সিগন্যাল অ্যাপে ইউজাররা চাইলে প্রত্যেক চ্যাট-এর জন্য ‘ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজেস’ ফিচার এবং ৫ সেকেন্ড থেকে এক সপ্তাহ পর্যন্ত সময়সীমা বেঁধে দিতে পারেন। সময়সীমা অতিক্রম করলে মেসেজ আপনাআপনি মুছে যাবে। 

অন্য দিকে, হোয়াটসঅ্যাপ-এর জনপ্রিয়তা ভাটা দেখা দেওয়ায় ডাউনলোড করার প্রবণতা বেড়েছে ‘টেলিগ্রাম’ (Telegram) অ্যাপেরও। গত কয়েক দিনে গুগল প্লে-তে (Google Play) টেলিগ্রাম-এর ডাউনলোড র‍্যাঙ্কিং বেশকয়েক ধাপ উঠেছে বলে দাবি করেছে অ্যাপ নির্মাতা সংস্থা।

বন্ধ করুন