বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > উইম্বলডনে তাক লাগালেন সেরাম কর্তার স্ত্রী, ৮৫ লাখের ব্যাগ ভাইরাল
এই সেই ব্যাগ। ছবি : টুইটার  (Twitter)
এই সেই ব্যাগ। ছবি : টুইটার  (Twitter)

উইম্বলডনে তাক লাগালেন সেরাম কর্তার স্ত্রী, ৮৫ লাখের ব্যাগ ভাইরাল

বিখ্যাত ফরাসি হার্মস বার্কিন ফাউবার্গের এই লাক্সারি ব্যাগের যা দাম, তাতে কলকাতায় নামী আবাসনে ফ্ল্যাট কেনা যাবে।

টাকা ও শখ থাকলে মানুষ কী না করে! তারই উদাহরণ মিলল আরও একবার। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হল সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার কর্তা আদার পুনাওয়ালার স্ত্রী নাতাশা পুনাওয়ালার ব্যাগ।

ছোট্ট হ্যান্ড ব্যাগ। গায়ে ফরাসি ক্যাফের জানলার মতো ডিজাইন করা। বিখ্যাত ফরাসি হার্মস বার্কিন ফাউবার্গের এই লাক্সারি ব্যাগের যা দাম, তাতে কলকাতায় নামী আবাসনে ফ্ল্যাট কেনা যাবে।

৮৫ লক্ষ টাকা!

আজ্ঞে হ্যাঁ। হজম করতে একটু সমস্যা হতেই পারে। কিন্তু এতটাই দামি সেরাম-কর্তার স্ত্রীর হ্যান্ডব্যাগ। আর সেই কারণেই তা ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। উইম্বলডনে অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার সঙ্গে দাঁড়িয়ে পোজ দিতে দেখা গিয়েছে নাতাশাকে। সেখানেই তাঁর হাতে এই ব্যাগ।

মার্কিন মুলুকে হার্মস বার্কিন ফাউবার্গের এই ব্যাগের দাম ১,১০,০০০-১,৩০,০০০০ মার্কিন ডলার পর্যন্ত হয়। (ভারতীয় মুদ্রায় ৮২ থেকে ৯৪ লক্ষ টাকা)

সেই ব্যাগ।
সেই ব্যাগ।

ব্রিটিশ অভিনেত্রী জেন বার্কিন ও হার্মস-এর চেয়ারম্যান-এর যৌথ উদ্যোগে ১৯৮৪ সালে বাজারে আসে হার্মস বার্কিন-এর লাক্সারি ব্যাগ।

অত্যন্ত নিপুণতার সঙ্গে বানানো এই ব্যাগগুলি সংখ্যায় খুব কম বানানো হয়। অর্থাত্ আপনার আর আরেকজনের একই ব্যাগ হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে। আর প্রতিটা ব্যাগে সেলাই থেকে মেটিরিয়াল... প্রতিটি ক্ষেত্রে এক শতাংশও খুঁত থাকে না।

হার্মস বার্কিন-এর লাক্সারি ব্যাগের বিশেষত্ব হল, এটিই একমাত্র লাক্সারি ব্যাগ, যা অল্পবয়সী মায়েদের কথা ভেবে বানানো। ব্যাগের মধ্যে রয়েছে বেবি বটল রাখার জায়গাও!

তাছাড়া এই ব্যাগগুলির ডিজাইন অন্যান্য ব্যাগের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা হয়। বলা যায়, কম দামের, অন্যান্য ব্যাগের ডিজাইন জন্ম নেয় এই ব্যাগগুলি থেকে। এগুলি নকল করেই নতুন ট্রেন্ড শুরু হয়। তাই শিল্প, ফ্যাশান, ব্র্যান্ড ভ্যালু ও দুষ্প্রাপ্য হওয়ার কারণে এগুলির এত বেশি দাম হয়।

গুচির সাদা প্যান্ট-স্যুট পড়েছেন তিনি। বেলবটমস-এ বেশ একটা রেট্রো ভাইব আছে। এই আউটফিটেরও যে দাম কয়েক লক্ষ টাকা, তা বলাই বাহুল্য।

অনেকেই বলছেন, এমনটা হওয়াটা খুব স্বাভাবিক। বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিকা প্রস্তুতকারক সংস্থার কর্তার স্ত্রী তিনি। বর্তমানে করোনা টিকাও সরবরাহ করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। ফলে তিনি তো আর সাধারণ ব্যাগ নিয়ে ঘুরবেন না!

আর সত্যি বলতে পুরো আউটফিটটাই বেশ মানিয়েছে নাতাশাকে। মা হওয়ার পরও তাঁর ফিটনেশ সত্যি ঈর্ষণীয়।

ফ্যাশনিয়েস্টা হিসাবে বরাবরই সুপরিচিত নাতাশা। প্রায়শই বিভিন্ন ফ্যাশন ইভেন্টে দেখা যায় তাঁকে। তাঁর ইনস্টাগ্রাম জুড়ে বিভিন্ন হাই ফ্যাশান ছবি।

বন্ধ করুন