বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > নজরে দিল্লি, তৃণমূলে যোগ 'RTI কর্মী' সাকেত গোখলের

নজরে দিল্লি, তৃণমূলে যোগ 'RTI কর্মী' সাকেত গোখলের

সাতেক গোখলে।

সাকেতের করা আরটিআইয়ের ভিত্তিতে এর আগে অনেক তথ্যই প্রকাশ্যে এসেছে যা জাতীয় রাজনীতিতে তোলপাড় ফেলেছে।

দিল্লির মাটিতে শক্তি বৃদ্ধির লক্ষ্যে তৃণমূল। তৃণমূলে যোগ দিলেন সমাজকর্মী সাকেত গোখলে। দিল্লিতে বিজেপি বিরোধী মুখ হিসেবেই পরিচিত তিনি। সাকেতের এই যোগদান দিল্লিতে তৃণমূলকে আরও শক্তিশালী করে তুলবে বলেই ওয়াকিবহাল মহলের নত।

এদিন তৃণমূলে যোগদানের পর সাকেত জানান, ‘‌সংসদে তৃণমূল দ্বিতীয় বৃহত্তম বিরোধী দল। বিজেপি বিরোধিতায় যোগ্য মুখ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেভাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সামনে থেকে লড়াই করছেন, আমার সেটাই প্রয়োজন।’‌ সাকেতের যোগদানের প্রসঙ্গ তুলে টুইটে তৃণমূলের তরফে জানানো হয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনমনীয় মানসিকতায় অনুপ্রাণিত হয়ে তৃণমূলের পরিবারে এলেন সাকেত গোখলে। উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়, ডেরেক ও ব্রায়ান ও যশবন্ত সিনহা।

উল্লেখ্য, সাকেতের করা আরটিআইয়ের ভিত্তিতে এর আগে অনেক তথ্যই প্রকাশ্যে এসেছে যা জাতীয় রাজনীতিতে তোলপাড় ফেলেছে। আরটিআই করার জন্য সাকেত সোশ্যাল মিডিয়ায় ভালোই পরিচিত। এই ধরনের একজন কর্মী দলে এলে আগামিদিনে সাংগঠনিকভাবে তৃণমূল আরও শক্তিশালী হয়ে উঠবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

গত বিধানসভা ভোটে বিজেপিকে রুখে দেওয়ার পর তৃণমূলের পরের লক্ষ্য আগামী লোকসভা নির্বাচনে দিল্লিতে বিজেপিকে রুখে দেওয়া। গত বিধানসভা ভোটের ঠিক আগেই তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী যশবন্ত সিনহা। বাংলায় ভোটে জয়লাভের পর জাতীয় রাজনীতিতে তৃণমূলের গুরুত্ব যে বাড়ছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এই পরিস্থিতিতে সাকেতের তৃণমূলে যোগদান করা বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইকে আরও মজবুত করবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন