বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'মোদীর সামনে কাউকে তো সাহস করে বলতে হবে,' সংরক্ষণ ইস্যুতে সুর চড়ালেন শরদ পাওয়ার
শরদ পাওয়ার (ফাইল ছবি)
শরদ পাওয়ার (ফাইল ছবি)

'মোদীর সামনে কাউকে তো সাহস করে বলতে হবে,' সংরক্ষণ ইস্যুতে সুর চড়ালেন শরদ পাওয়ার

  • 'বছর দুয়েক আগে সাংবিধানিক অধিকার বজায় রাখার জন্য ওবিসিদের তালিকা তৈরি, সংবিধান সংশোধন করার যে বিষয়গুলি ছিল সেগুলি নেহাতই আইওয়াশ।' সরাসরি অভিযোগ তুলেছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শরদ পাওয়ার।

জাতিভিত্তিক জনগণনা চালু করা ও সামাজিক দায়বদ্ধতা রক্ষার স্বার্থে সংরক্ষণের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশের উর্ধসীমা তুলে দেওয়ার ব্যাপারে কেন্দ্রের কাছে আর্জি জানালেন এনসিপি প্রেসিডেন্ট শরদ পাওয়ার। কেন্দ্রীয় সরকারের পদক্ষেপের বিরুদ্ধে জনমত তৈরির ব্যাপারেও দল সক্রিয় হবে বলে জানিয়েছেন শরদ পাওয়ার। কোটা ইস্যুতে মোদী পরিচালিত কেন্দ্রীয় সরকার সাধারণ মানুষকে বিপথে পরিচালিত করছেন বলেও অভিযোগ তুলেছেন শরদ পাওয়ার। ‘বছর দুয়েক আগে সাংবিধানিক অধিকার বজায় রাখার জন্য ওবিসিদের তালিকা তৈরি, সংবিধান সংশোধন করার যে বিষয়গুলি ছিল সেগুলি নেহাতই আইওয়াশ।’ সরাসরি অভিযোগ তুলেছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শরদ পাওয়ার। 

 

‘৫০ শতাংশের যে উর্ধসীমা রয়েছে তাতে শিথিলতা না আনলে মারাঠা কোঠাকে প্রতিষ্ঠা করা যাবে না।’ মতামত শরদ পাওয়ারের। তিনি জানিয়েছেন,' ওবিসি সম্পর্কে প্রকৃত তথ্য জানা অত্যন্ত দরকার। এটা না জানলে কত শতাংশ প্রতিনিধিত্ব থাকা দরকার সেটা জানা যাবে না।' জানিয়েছে শরদ পাওয়ার। তিনি জানিয়েছেন ‘অধিকাংশ রাজ্যেই ৬০ শতাংশের বেশি সংরক্ষণ রয়েছে। তবে মোদীর সামনে সাহস করে কাউকে বলতে হবে।’ জানিয়েছেন শরদ পাওয়ার। প্রসঙ্গত গত ১০ই অগস্ট একটি বিল পাশ হয়েছে যেখানে কারা ওবিসি সেটা জানানোর জন্য রাজ্যগুলিকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এদিকে ১২৭তম সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে রাজ্যগুলিকে অনুমতি দেওয়া হয়েছে কারা সামাজিক ও শিক্ষাগতভাবে পিছিয়ে রয়েছে তা চিহ্নিত করার জন্য। 

বন্ধ করুন