বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘‌ক্ষমা করবেন, জানতাম না’‌, চিরকুট লিখে করোনার টিকা ফেরাল হরিয়ানার চোর
বিতর্কিত চিরকুট
বিতর্কিত চিরকুট

‘‌ক্ষমা করবেন, জানতাম না’‌, চিরকুট লিখে করোনার টিকা ফেরাল হরিয়ানার চোর

  • হরিয়ানার জিন্দ জেনারেল হাসপাতালের গুদাম ঘর থেকে ১৭০০ কোভ্যাক্সিন ও কোভিশিল্ডের ডোজ ভরতি একটি ব্যাগ চুরি করে অজ্ঞাত পরিচয়ের ওই চোর।

‌হাসপাতাল থেকে চুরি করেছিল ব্যাগটি। কিন্তু তার মধ্যে ঠিক কি রয়েছে, তা ঘুণাক্ষরেও টের পায়নি চোর। পরে ওই ব্যাগটি খুলে চক্ষু চড়কগাছ তার। দেখে, তার মধ্যে রয়েছে করোনার ভ্যাকসিন। আর তা দেখেই মন গলে গেল চোরের! তৎক্ষণাৎ ব্যাগটি ফিরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সে। যেমন ভাবা, তেমনি কাজ। ‌চুরি করার সত্ত্বেও করোনা ভ্যাকসিন ‌ভরতি ব্যাগটি ফিরিয়ে দিয়ে গেল চোর! সঙ্গে একটি চিরকুটে হিন্দিতে লিখল, ‘‌ সরি পতা নেহি থা ইসমে করোনা কি দওয়াই হ্যা।’‌ যার বাংলায় তর্জমা করলে দাঁড়ায়, ‘‌ক্ষমা করবেন, আমি জানতাম না—এর মধ্যে করোনার ওষুধ রয়েছে।’‌

বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে হরিয়ানার জিন্দে। সেখানকার জিন্দ জেনারেল হাসপাতালের গুদাম ঘর থেকে ১৭০০ কোভ্যাক্সিন ও কোভিশিল্ডের ডোজ ভরতি একটি ব্যাগ চুরি করে অজ্ঞাত পরিচয়ের ওই চোর। তার কয়েক ঘণ্টা পর দুপুরে ওই চোর সিভিল লাইন থানার সামনে একটি চায়ের দোকানে হাজির হয়। দেকানদারকে ব্যাগটি দিয়ে তাঁকে জানায়, যাতে ব্যাগটি পুলিশকে দিয়ে দেন তিনি। এর কারণ হিসাবে চায়ের দোকানদারকে বলে যায়, সে পুলিশের জন্য খাবার সরবরাহ করে। তাকে অন্য জায়গায় দ্রুত পৌঁছতে হবে। এই বলে সেখান থেকে চম্পট দেয় ওই চোর। পরে ওই দোকানদার বিষয়টি কর্তব্যরত পুলিশকর্মীদের জানান। পুলিশ ওই ব্যাগটি খুলে দেখে তার মধ্যে কোভ্যাক্সিন ও কোভিশিল্ডের ডোজ রয়েছে। তার সঙ্গে একটি সাদা কাগজে হাতে লেখা চিরকুটও উদ্ধার করে পুলিশ। তাতেই ওই চোরের ক্ষমা চাওয়ার বিষয়টি লেখা ছিল।

 

ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই সিভিল লাইন থানার পুলিশ স্বতঃস্ফুর্তভাবে হাসপাতাল থেকে ভ্যাকসিন চুরির মামলা রজু করে। অজ্ঞাত পরিচয়ের ওই চোরকে খুঁজতে তৎপর হয়েছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, আমরা ওই চোরকে খোঁজার চেষ্টা করছি। মামলাও দায়ের করা হয়েছে। তদন্তকারীদের সন্দেহ, ওই চোর সম্ভবত ব্যাগে রেমেডিসিভির আছে ভেবে করোনার ভ্যাকসিন ভরতি ব্যাগটি চুরি করেছিল।

 

বন্ধ করুন