বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > এখনও হিংসা অব্যাহত দক্ষিণ আফ্রিকায়, মোতায়েন করা হল সেনার ২৫,০০০ জওয়ান
জ্বলছে দক্ষিণ আফ্রিকা। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
জ্বলছে দক্ষিণ আফ্রিকা। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)

এখনও হিংসা অব্যাহত দক্ষিণ আফ্রিকায়, মোতায়েন করা হল সেনার ২৫,০০০ জওয়ান

  • বিক্ষোভ ঠেকাতে দক্ষিণ আফ্রিকায় ২৫ হাজার সেনা মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। সেখানে হিংসার ঘটনায় ৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বিক্ষোভ ঠেকাতে দক্ষিণ আফ্রিকায় ২৫ হাজার সেনা মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। সেখানে হিংসার ঘটনায় ৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি জেকব জুমাকে গ্রেফতার করার পরই বিক্ষোভ শুরু হয়। সেই বিক্ষোভ অচিরেই সহিংস হয়ে ওঠে। দোকানপাট লুট শুরু হয়। ভাঙচুর চলে। অনেক জায়গায় আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। জুমাকে গ্রেফতার করা নিয়ে ক্ষোভ ছিলই, তার সঙ্গে যুক্ত হয় লকডাউনে প্রচুর মানুষের চাকরি যাওয়া এবং জিনিসের দাম আকাশছোঁয়া হয়ে যাওয়ার ঘটনা। তাই মানুষ এভাবে ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

এই অবস্থায় আগেই সেনা নামানো হয়েছিল। কিন্তু সংখ্যায় অত বেশি নয়। সেনা নামার পরেও বিক্ষোভ হয়েছে। সহিংসতা হয়েছে। কোয়াজুলু-নাটাল ও গওতেং-এর অবস্থা সব চেয়ে খারাপ। বিক্ষোভ ও লুঠপাট থামছেই না। তাই এবার ২৫ হাজার সেনা নামানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

পার্লামেন্টে প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, ওই দুই শহরেই অধিকাংশ সেনা মোতায়েন করা হবে। সেখানে পুলিশ পরিস্থিতি সামলাতে পারছে না। সেনাকে সেখানে শান্তি ফেরানোর দায়িত্ব দেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, যা চলছে, তাঁকে শুধুমাত্র অপরাধের ছবি হিসাবে দেখা যাচ্ছে না। কারণ, দেশের গুরুত্বপূর্ণ পরিকাঠামোগুলিকে আক্রমণ করা হচ্ছে। তাই এটা অনেক বেশি সংগঠিত ও সংঘবদ্ধ অপরাধ। ১২ জন প্রধান উস্কানি দেওয়া ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, সব মিলিয়ে এক হাজার ৭০০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সংবাদসংস্থা রয়টার্স জানাচ্ছে, ডারবানের কিছু এলাকায় এখনও লুঠতরাজ চলছে। কিছু এলাকায় মানুষই রাস্তা বন্ধ করে রেখেছেন। কিন্তু এরকম চলতে থাকলে জ্বালানি ও খাবারের অভাব দেখা দিতে পারে।

বন্ধ করুন