বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ডাক্তার হতে চাপ পরিবারের, তৃতীয়বার NEET পরীক্ষায় বসার আগেই আত্মহত্যা ছাত্রের
আত্মহত্যা তামিলনাড়ুর ছাত্রের (প্রতীকী ছবি)
আত্মহত্যা তামিলনাড়ুর ছাত্রের (প্রতীকী ছবি)

ডাক্তার হতে চাপ পরিবারের, তৃতীয়বার NEET পরীক্ষায় বসার আগেই আত্মহত্যা ছাত্রের

  • ছাত্রের মৃত্যুকে ঘিরে বিভিন্ন মহলে শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

এর আগে দুবার ডাক্তার হওয়ার প্রবেশিকা পরীক্ষায় বসেছিলেন। দুবারই পাশ করতে পারেননি। আর রবিবার  NEET পরীক্ষার আগেই বাড়ি থেকে উদ্ধার হল ওই ছাত্রের মৃতদেহ। তামিলনাড়ুর সালেমের ঘটনা। মৃতের নাম এস ধনুষ। অনুমান করা হচ্ছে ডাক্তারির সর্বভারতীয় প্রবেশিকা পরীক্ষায় এবারও ফেল করার আশঙ্কায় তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তবে কোনও সুইসাইড নোট অবশ্য পাওয়া যায়নি। সালেমের এক পুলিশ আধিকারিকের দাবি, মনে করা হচ্ছে ওই ছাত্র সুইসাইড করেছেন। নিট পরীক্ষা পাশ করার জন্য তার বাড়ির লোকজনও চাপ দিতেন। অন্য কোনও কোর্সে ভর্তি না হওয়ার ব্যাপারেও বলা হত। সম্ভবত সেই মানসিক চাপ সহ্য করতে পারেননি ওই ছাত্র এদিন সকালে তার বাড়ি থেকে দেহটি উদ্ধার করা হয়েছে। প্রসঙ্গত ওই ছাত্রের দাদা ইঞ্জিনিয়ারিং গ্র্যাজুয়েট। তার বাবা কারখানায় কাজ করেন।

এদিকে ছাত্রের মৃত্যুকে ঘিরে বিভিন্ন মহলে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এদাপ্পাড়ি পালানিস্বামী বলেন, নিট পরীক্ষা বাতিল করার যে প্রতিশ্রুতি ডিএমকে দিয়েছিল সেটা কোথায় গেল? এদিকে মুখ্যমন্ত্রী এমকে স্ট্যালিন বলেন, ‘নিট পরীক্ষা পুরোপুরিভাবে বাদ দেওয়ার ব্যাপারে কালই বিল আনা হবে। এই অবিচার এবার বন্ধ হওয়া দরকার।’ ২০১৭ সালে নিট পরীক্ষা চালু হওয়ার পর থেকে এক ডজনেরও বেশি পড়ুয়া ফেল করার আতঙ্কে সুইসাইড করেছেন। এটা আর মানা যায় না। দাবি উঠছে বিভিন্ন মহল থেকে। 

 

এর আগে দুবার ডাক্তার হওয়ার প্রবেশিকা পরীক্ষায় বসেছিলেন। দুবারই পাশ করতে পারেননি। আর রবিবার  NEET পরীক্ষার আগেই বাড়ি থেকে উদ্ধার হল ওই ছাত্রের মৃতদেহ। তামিলনাড়ুর সালেমের ঘটনা। মৃতের নাম এস ধনুষ। অনুমান করা হচ্ছে ডাক্তারির সর্বভারতীয় প্রবেশিকা পরীক্ষায় এবারও ফেল করার আশঙ্কায় তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তবে কোনও সুইসাইড নোট অবশ্য পাওয়া যায়নি। সালেমের এক পুলিশ আধিকারিকের দাবি, মনে করা হচ্ছে ওই ছাত্র সুইসাইড করেছেন। নিট পরীক্ষা পাশ করার জন্য তার বাড়ির লোকজনও চাপ দিতেন। অন্য কোনও কোর্সে ভর্তি না হওয়ার ব্যাপারেও বলা হত। এদিন সকালে তার বাড়ি থেকে দেহটি উদ্ধার করা হয়েছে। প্রসঙ্গত ওই ছাত্রের দাদা ইঞ্জিনিয়ারিং গ্র্যাজুয়েট। তার বাবা কারখানায় কাজ করেন।

এদিকে ছাত্রের মৃত্যুকে ঘিরে বিভিন্ন মহলে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এদাপ্পাড়ি পালানিস্বামী বলেন, নিট পরীক্ষা বাতিল করার যে প্রতিশ্রুতি ডিএমকে দিয়েছিল সেটা কোথায় গেল। এদিকে মুখ্যমন্ত্রী এমকে স্ট্যালিন বলেন, নিট পরীক্ষা পুরোপুরিভাবে বাদ দেওয়ার ব্যাপারে কালই বিল আনা হবে। এই অবিচার এবার বন্ধ হওয়া দরকার। ২০১৭ সালে নিট পরীক্ষা চালু হওয়ার পর থেকে এক ডজনেরও বেশি পড়ুয়া ফেল করার আতঙ্কে সুইসাইড করেছেন। এটা আর মানা যায় না। দাবি উঠছে বিভিন্ন মহল থেকে। 

|#+|

 

 

 

 

বন্ধ করুন