নির্ভয়ার মা। ফাইল ছবি (PTI)
নির্ভয়ার মা। ফাইল ছবি (PTI)

শেষ আশাও শেষ, নির্ভয়ার ধর্ষকদের ক্ষমার আবেদন খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট

  • বন্ধ হয়ে গেল প্রাণরক্ষার শেষ আইনি দরজা

নির্ভয়া ধর্ষণকাণ্ডে অভিযুক্তদের ক্ষমাভিক্ষার আবেদন খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট। ইতিমধ্যে দিল্লির পাতিয়ালা হাউজ কোর্ট অভিযুক্তদের প্রাণভিক্ষার আবেদন খারিজ করেছে। তার পরই চার ধর্ষকের ফাঁসির দিনক্ষণ জানিয়ে দিয়েছে জেল প্রশাসন। ২২ জানুয়ারি সকাল ৭টায় ফাঁসিতে ঝুলবে নির্ভয়ার ৪ ধর্ষক। প্রাণরক্ষার শেষ চেষ্টা হিসাবে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল দোষী সাব্যস্ত এক ধর্ষক। মঙ্গলবার তার আবেদনও খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট।

গত ৭ জানুয়ারি নির্ভয়ার ধর্ষকদের প্রাণভিক্ষার অন্তিম আবেদন খারিজ করে দেয় দিল্লির পাতিয়ালা হাউজ কোর্ট। জারি করে মৃত্যুপরোয়ানা। এর পর ৯ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় বিনয় শর্মা নামে এক ধর্ষক। সেই আবেদনও খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্টে আবেদন খারিজের পর নির্ভয়ার ধর্ষকদের ক্ষমা প্রার্থনার আর কোনও আইনি পথ খোলা রইল না বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

২০১২ সালের ডিসেম্বরে দিল্লির রাস্তায় চলন্ত বাসে গণধর্ষণের শিকার হন এক তরুণী। ধর্ষণের পর তাঁর যৌনাঙ্গে ধাতব রড ঢুকিয়ে নির্যাতন চালয় পিশাচরা। ঘটনায় দেশে মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে দেশ জুড়ে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। চাপে পড়ে যায় মনমোহন সিংয়ের সরকার। গ্রেফতার হয় ৫ জন। তার মধ্যে ১ অপরাধী নাবালক হওয়ায় ছাড় পেয়ে যায়। এর পরই আইনে সংশোধন করে ভারতের সংসদ। ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তের মানসিক বয়সের নিরিখে তাকে নাবালক বা সাবালক ঘোষণার ব্যবস্থা করা হয় আইনে।





বন্ধ করুন