বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'প্রচার পেতে মামলা', দিল্লির সিঙ্ঘু সীমানা খালি করার আবেদন খারিজ সুপ্রিম কোর্টের
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই

'প্রচার পেতে মামলা', দিল্লির সিঙ্ঘু সীমানা খালি করার আবেদন খারিজ সুপ্রিম কোর্টের

  • গত বছর অক্টোবর থেকে সিঙ্ঘু সীমানায় কৃষকরা অবস্থান বিক্ষোভে বসেছেন।

দিল্লি-হরিয়ানার সীমানায় সিঙ্ঘু থেকে যাতে অবস্থানকারী কৃষকদের সরানো হয়, এই দাবি জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন সোনিপতের কয়েকজন বাসিন্দা। তবে সেই আবেদন খারিজ করে সুপ্রিম কোর্টের তরফে মামলাকারীদের হাই কোর্টের দ্বারস্থ হতে বলা হয়। পাশাপাশি এই মামলার প্রেক্ষিতে আবেদনকারীদের ভর্ত্সনাও করেন বিচারতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়। উল্লেখ্য জাতীয় রাজধানীতে প্রবেশের অন্যতম পথ সিঙ্ঘু সীমানায় কৃষকরা অবস্থান বিক্ষোভে বসেছেন। যা গত অক্টোবর থেকে চলে আসছে।

এদিন মামলার শুনানির শুরুতেই আবেদন খারিজ করে বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়, বিক্রম নাথ, হিমা কোহলির ডিভিশন বেঞ্চ। শীর্ষ আদালতের বক্তব্য, 'আমরা আপনাকে এই মামলা প্রত্যাহার করে হাই কোর্টে যাওয়ার অনুমতি দিতে পারি। আপনারা সোনিপতের বাসিন্দা হিসেবে উচ্চ আদালতে কেন আবেদন করছেন না? প্রচার পেতে কেন এই সব আবেদন করা হচ্ছে সুপ্রিম কোর্টে। স্থানীয় বিষয় নিয়ে হাই কোর্ট আমাদের থেকে অনেক বেশি অবগত। আমাদের এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করার কোনও প্রয়োজন নেই। হাই কোর্টকে ভরসা করুন।'

উল্লেখ্য, মামলাকারীদের অভিযোগ, কৃষকদের অবস্থানের জেরে যাতায়তে অসুবিধা হচ্ছে স্থানীয় বাসিন্দাদের। এরপরই সুপ্রিম কোর্ট বলে, 'আবেদনকারীর স্বাধীনতা রয়েছে যাতে তিনি হাই কোর্টে এই মামলা করেন। সেখানে কৃষকদের বাকস্বাধীনতা বা মৌলিক অধিকার খর্বের অভিযোগ, সব বিষয়েই খতিয়ে দেখা সম্ভব।'

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ২৬ অক্টোবর থেকে দিল্লি, হরিয়ানা, পঞ্জাব সহ উত্তর ভারত তথা দেশের প্রতিটি প্রান্তে, কেন্দ্রের নয়া কৃষি আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ আন্দোলন শুরু হয়েছে। যাকে ঘিরে এ বছর ২৬ জানুয়ারি সাধারণতন্ত্র দিবসে কৃষকদের ট্র্যাক্টর ব়্যালিকে ঘিরে অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছিল রাজধানী দিল্লি। 

বন্ধ করুন