বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > টিকার ট্রায়ালের স্বচ্ছতা নিয়ে 'কঠিন প্রশ্ন' আদালতে,জবাব দিতে আরও সময় পেল কেন্দ্র
ফাইল ছবি : ব্লুমবার্গ (Bloomberg)
ফাইল ছবি : ব্লুমবার্গ (Bloomberg)

টিকার ট্রায়ালের স্বচ্ছতা নিয়ে 'কঠিন প্রশ্ন' আদালতে,জবাব দিতে আরও সময় পেল কেন্দ্র

  • শীর্ষ আদালতে জনস্বার্থে দায়ের করা একটি পিটিশনের প্রেক্ষিতে কেন্দ্রকে নোটিশ জারি করা হয়েছিল।

বাধ্যতামূলক টিকাকরণ আদেশের বিরুদ্ধে নির্দেশনা এবং কোভিড ভ্যাকসিনগুলির জন্য পরিচালিত ক্লিনিকাল ট্রায়ালগুলিতে তথ্যের স্বচ্ছতা চেয়ে একটি পিটিশনের প্রেক্ষিতে জবাব চাওয়া হয়েছিল কেন্দ্রের কাছে। সেই পিটিশনের জবাব দিতে কেন্দ্রকে আরও তিন সপ্তাহের সময় দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

৯ অগস্ট থেকে এই মামলাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। মামলাটির শুনানি চলছে বিচারপতি এল নাগেশ্বর রাও এবং ঋষিকেশ রায়ের ডিভিশন বেঞ্চে। শীর্ষ আদালতে জনস্বার্থে দায়ের করা একটি পিটিশনের প্রেক্ষিতে কেন্দ্রকে নোটিশ জারি করা হয়েছিল। সেই নোটিশের প্রেক্ষিতে জবাব দেওয়ার জন্য কেন্দ্রকে চার সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়ে। সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা কেন্দ্রের পক্ষে সওয়াল করে এই নোটিসের জবাব দাখিলের জন্য সময় চেয়েছিলেন সোমবার। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে শীর্ষ আদালত কেন্দ্রকে আরও তিন সপ্তাহ সময় দেয়।

উল্লেখ্য, এই পিটিশনটি দাখিল করেছিলেন ডঃ জেকব পুলিয়েল। মামলাকারী ডঃ জেকব ন্যাশনাল টেকনিকাল অ্যাডভাইজরি গ্রুপ অন ইমিউনাইজেশনের প্রাক্তন সদস্য। তাঁর হয়ে মামলাটি লড়ছেন আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ। দেশে এখনও অনেক মানুষ টিকা নিতে অনিচ্ছুক। টিকার কার্যকারিতা এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে সন্দেহ থাকায় এই অনীহা প্রকাশ। এর প্রেক্ষিতে এই মামলা দায়ের করা হয়।

মামলার প্রেক্ষিতে আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ এর আগে জানিয়েছিলেন, এটি কোনও ভাবেই টিকা বিরোধী কোনও মামলা নয়। তবে টিকা নিয়ে স্বচ্ছতার তাগিদে এই মামলা করা হয়েছে। পিটিশনটি ভারতে পরিচালিত কোভিড ভ্যাকসিনগুলির ক্লিনিকাল ট্রায়ালগুলির প্রতিটি পর্যায়ের জন্য পৃথক তথ্য সরবরাহ করার জন্য সরকার এবং ভারতের ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেলের (ডিসিজিআই) কাছে দাবি করেছিল। ভ্যাকসিন নির্মাতারা - ভারত বায়োটেক এবং সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়াকেও পিটিশনে যোগ করার আবেদন করা হয়েছিল।

বন্ধ করুন