বাড়ি > ঘরে বাইরে > সমালোচনা সহজ, এবার বিচার বিভাগের সদর্থক ভূমিকা প্রচারের আবেদন বিচারপতির
বিচার ব্যবস্থার সদর্থক বিষয়গুলিও তুলে ধরা প্রয়োজন, মনে করেন বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়।
বিচার ব্যবস্থার সদর্থক বিষয়গুলিও তুলে ধরা প্রয়োজন, মনে করেন বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়।

সমালোচনা সহজ, এবার বিচার বিভাগের সদর্থক ভূমিকা প্রচারের আবেদন বিচারপতির

  • সমালোচনা করা খুব সহজ কারণ তাতে কৌতূহলের অবকাশ থাকে।

বিচার ব্যবস্থার সমালোচনা করা সহজ। পাশাপাশি, তার সদর্থক দিকগুলিও জনসমক্ষে তুলে ধরা প্রয়োজন। শনিবার এক অনুষ্ঠানে এই মন্তব্য করলেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়।

সুপ্রিম কোর্টের ই-কমিটির নতুন ওয়েবসাইট চালু উপলক্ষে গতকালের ওই অনুষ্ঠানে বিচারপতি বলেন, ‘আমরা প্রায়ই সমালোচনা শুনি। পরিবর্ত হিসেবে এবার বিচার ব্যবস্থার সদর্থক দিকগুলি সম্পর্কেও বলা হোক। আসলে সমালোচনা করা খুব সহজ কারণ তাতে কৌতূহলের অবকাশ থাকে। কিন্তু বিচার ব্যবস্থার সদর্থক বিষয়গুলিও তুলে ধরা প্রয়োজন।’

এই প্রসঙ্গে কোভিড আবহে ভারতীয় বিচারব্যবস্থার কাজ সম্পর্কে কিছু পরিসংখ্যান উল্লেখ করেন বিচারপতি চন্দ্রচূড়। তিনি জানান, ২৪ মার্চ থেকে ২৮ অগস্ট পর্যন্ত দেশজুড়ে জেলা আদালতে দায়ের করা হয়েছে ২৮.৬ লাখ মামলা। পাশাপাশি, এই সময়কালে মোট ১২.৬ মামলার নিষ্পত্তি হয়েছে। এই পর্বে সুপ্রিম কোর্টে শুনানি হয়েছে ১৫,০০০ মামলার এবং সেই সূত্রে কথা হয়েচে ৫০,০০০ এর বেশি আইনজীবীর সঙ্গে। 

চন্দ্রচূড় বলেন, ‘মনে রাখতে হবে, আন্তর্জাতিক আদালতে যেখানে মামলার সংখ্যা নয় পেরোয় না, সেখানে আমরা শয়ে-হাজারের কথা বলছি।’ 

ই-কমিটির নতুন ওয়েবসাইট গড়ে তুলতে দৃষ্টিশক্তিহীন বিচারবিভাগীয় করণিক রাহুল বাজাজের অবদানের কথা বিশেষ করে উল্লেখ করেন বিচারপতি। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের রোডস স্কলার বাজাজের পরামর্শ প্রযুক্তিগত ভাবেই শুধু নয়, বিশেষ ভাবে সক্ষমদের ব্যবহারের জন্য কী ভাবে প্রস্তুত করা দরকার, সে সম্পর্কেও তিনি পরামর্শ দিয়েছেন বলে দাবি বিচারপতির।

বন্ধ করুন