বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > দিল্লি পুনর্গঠনের ‘সেন্ট্রাল ভিস্টা প্রোজেক্ট’-এ স্থগিতাদেশ দিল না সুপ্রিম কোর্ট
দিল্লির রাজপথ (ছবি সৌজন্য এপি)
দিল্লির রাজপথ (ছবি সৌজন্য এপি)

দিল্লি পুনর্গঠনের ‘সেন্ট্রাল ভিস্টা প্রোজেক্ট’-এ স্থগিতাদেশ দিল না সুপ্রিম কোর্ট

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে তাড়াহুড়ো করে ২০,০০০ কোটি টাকা খরচ করে নয়া প্রকল্প কার্যকরের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন বিরোধীরা।

‘সেন্ট্রাল ভিস্টা প্রোজেক্ট’ স্থগিত রাখা হচ্ছে না। বৃহস্পতিবার একথা জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্টে।

আরও পড়ুন : গরীবদের ৬৫ হজার কোটি টাকা দিতে মোদী সরকারকে আর্জি রঘুরাম রাজনের

রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে ইন্ডিয়া গেট পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা পুনর্গঠনের প্রকল্প আওতায় নতুন একটি সংসদ ভবন তৈরি হবে। মন্ত্রকগুলির জন্য নয়া একটি কেন্দ্রীয় সচিবালয় ভবন তৈরি করা হবে। একইসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী ও উপ-রাষ্ট্রপতির নয়া বাসভবন তৈরি হবে। পুরো প্রকল্পটি ২০২৪ সালের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। সেজন্য ২০,০০০ কোটি টাকা খরচ ধার্য করা হয়েছে।

আরও পড়ুন : কীভাবে হবে কলেজে মার্কিং, কখন হবে প্র্যাক্টিকাল পরীক্ষা, জানুন UGC-র গাইডলাইন

গত বছর ডিসেম্বরে সাউথ ব্লকের কাছে ডালহৌসি রোডের একটি ১৫ একর জমিকে আমোদপ্রমোদ স্থানের পরিবর্তে আবাসন হিসেবে ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দিল্লি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাবিত বাসভবনের কাছেই সেই জমিটি রয়েছে।

আরও পড়ুন : Lockdown 2.0: কোন কোন জেলায় ৪ মে থেকে কী কী ছাড় মিলবে, কয়েকদিনের মধ্যে জানাবে কেন্দ্র

পুনর্গঠন পরিকল্পনায় জমি ব্যবহারের পরিবর্তনের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে শীর্ষ আদালতে একটি পিটিশন দাখিল হয়েছিল। সেই মামলায় ‘সেন্ট্রাল ভিস্টা প্রোজেক্ট’-এ স্থগিতাদেশ দেয়নি প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ।

আরও পড়ুন : এবার কি মদের দোকান খুলবে? মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা ও নতুন রেটচার্টে আশার আলো

তবে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে তাড়াহুড়ো করে ২০,০০০ কোটি টাকা খরচ করে নয়া প্রকল্প কার্যকরের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন বিরোধীরা। সেই প্রস্তাবিত প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ অর্থ স্থগিত রাখার আর্জি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠিও লিখেছিলেন কংগ্রেসের অন্তর্বর্তী সভাপতি সোনিয়া গান্ধী। তিনি বলেছিলেন, 'এরকম পরিস্থিতিতে এরকম কাজ আত্মতুষ্টি বললেও কম হয়। আমি নিশ্চিত, ঐতিহাসিক সংসদ ভবেই অনায়াস কাজ চলতে পারে। এরকম জরুরি বিষয় নেই যে সংকট না কাটা পর্যন্ত এটা স্থগিত রাখা যাবে না।'

আরও পড়ুন : Covid-19 Updates: করোনা যুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনায় ৩০ লাখ ডলার অনুদান আমেরিকার

সেই সিদ্ধান্ত নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ মহুয়া মৈত্রও। তিনি বলেছিলেন, 'করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সম্পদ তৈরি করবে বলে দু'বছরের জন্য সাংসদের তহবিল বন্ধ করছে সরকার। আরও সেন্ট্রাল ভিস্টা প্রোজেক্টের জন্য ২০,০০০ কোটি টাকা খরচ করতে চাইছে।'

আরও পড়ুন : বিভিন্ন পরীক্ষার অনলাইন আবেদনের দিন পিছোল কেন্দ্র, জানুন বিশদে

বন্ধ করুন