বাড়ি > ঘরে বাইরে > কোভিড আবহে ‘বিবেকের তাড়নায়’ বিদায়ী সংবর্ধনার আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান বিচারপতির
করোনা পরিস্থিতিতে কোনও বিদায়ী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন বিচারপতি অরুণ মিশ্র।
করোনা পরিস্থিতিতে কোনও বিদায়ী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন বিচারপতি অরুণ মিশ্র।

কোভিড আবহে ‘বিবেকের তাড়নায়’ বিদায়ী সংবর্ধনার আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান বিচারপতির

  • বিচারপতি মিশ্র জানিয়েছেন, Covid-19 অতিমারীর কারণে বিশ্বজুড়ে যে কষ্টকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তাতে কোনও রকম বিদায়ী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আমার বিবেকে বাধছে।

বিশ্বজুড়ে কোভিড অতিমারীর দাপটে মরছে মানুষ। এই পরিস্থিতিতে সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে নিজের বিদায়ী অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করলেন বিচারপতি অরুণ মিশ্র।

আগামিকাল, ২ সেপ্টেম্বর অবসরগ্রহণ করছেন বিচারপতি মিশ্র। তাঁর সম্মানে বিদায়ী সংবর্ধনার আয়োজন করেছিল বার অ্যাসোসিয়েশন। কিন্তু এই বিষয়ে বেঁকে বসেছেন স্বয়ং বিচারপতিই। বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি দুষ্মন্ত দাভেকে চিঠি লিখে তিনি জানিয়েছেন, ‘Covid-19 অতিমারীর কারণে বিশ্বজুড়ে যে কষ্টকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তাতে কোনও রকম বিদায়ী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আমার বিবেকে বাধছে। এই কারণে আমাকে ক্ষমা করুন।’

একই কারণে কনফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ান বার সংগঠন আয়োজিত বিদায়ী অনুষ্ঠানেও উপস্থিত থাকতে পারবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন বিচারপতি মিশ্র। সংগঠনের উদ্দেশে চিঠি লিখে তিনি আশ্বস্ত করেছেন, পরিস্থিতি স্বাভিক হওয়ার পরে তিনি সেখানে গিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন।

সোমবার আদালত অবমাননা মামলায় দোষী আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণকে শাস্তি হিসেবে একটাকা জরিমানা করে বিচারপতি অরুণ মিশ্রর নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ। ঘটনাচক্রে, সেই মামলায় প্রশান্ত ভূষণের পক্ষে মামলা লড়েন দুষ্মন্ত দাভে। 

গত ফেব্রুয়ারি মাসে আন্তর্জাতিক বিচারবিভাগীয় সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর স্তুতি করে বিতর্ক উসকে দিয়েছিলেন বিচারপতি মিশ্র। তার জেরে তাঁর বিরুদ্ধে ২৬ ফেব্রুয়ারি সমালোচনা করে সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের তরফে বলা হয়, ‘বার অ্যাসোসিয়েশন বিশ্বাস করে যে, এমন বিবৃতি বিচার বিভাগের স্বাধীনতা সম্পর্কে নিম্ন ধারণা তৈরি করে এবং সেই কারণে মাননীয় বিচারপতিদের ভবিষ্যতে এমন কোনও বিবৃতি না দেওয়ার জন্য আবেদন জানাচ্ছে।’

বন্ধ করুন