বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > একজন ছাত্র সংক্রামিত হলেই দায় রাজ্যের, অফলাইনের পরীক্ষায় স্থগিতাদেশ আদালতের
দেশ জুড়ে এখনও চলছে করোনার দাপট। ফাইল ছবি : রয়টার্স  (Reuters)
দেশ জুড়ে এখনও চলছে করোনার দাপট। ফাইল ছবি : রয়টার্স  (Reuters)

একজন ছাত্র সংক্রামিত হলেই দায় রাজ্যের, অফলাইনের পরীক্ষায় স্থগিতাদেশ আদালতের

  • ৬ই সেপ্টেম্বর থেকে ২৭শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল।

কোভিড পরিস্থিতিতে ছাত্রছাত্রীদের সংক্রণের আশঙ্কার কথা মাথায় রেখে কেরলে অফলাইনে একাদশ শ্রেণির পরীক্ষা নেওয়ার উদ্যোগে স্থগিতাদেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। সোমবার থেকে এই পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। পাশাপাশি কমবয়সী পড়ুয়াদের এত ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দেওয়ার আগে কী ধরনের বিজ্ঞানসম্মত পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে সেটাও রাজ্যের কাছে জানতে চেয়েছে আদালত। Justice AM Khanwilkar, Hrishikesh Roy, CT Ravikumar এর বেঞ্চের মন্তব্য, ‘কেরলে রোজ ৩০ হাজার সংক্রমণের ঘটনা সামনে আসছে। উদ্বেগজনক পরিস্থিতি কেরলে। বর্তমান পরিস্থিতি এই কমবয়সীদের এভাবে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দেওয়া ঠিক নয়।’

 

আইনজীবী এ রসুলসান গত ২৭শে অগস্ট এই ইস্যুতে নিম্ন আদালতে পরাজিত হয়েছিলেন। এরপর পরীক্ষার স্থগিতাদেশ চেয়ে তিনি সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। এদিকে ৬ই সেপ্টেম্বর থেকে ২৭শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। একাদশ শ্রেণির অফলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার আগে বোর্ড পরিস্থিতিটাকে সিরিয়াসলি নেয়নি বলে আবেদনকারীর তরফে দাবি করা হয়েছিল। এদিকে ১৩ই সেপ্টেম্বর পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত পরীক্ষা স্থগিত রাখার ব্যাপারেও আদালতের তরফে বলা হয়েছে।

এদিকে গত এপ্রিলে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির অফলাইনে পরীক্ষা সাফল্যের সঙ্গে নেওয়া হয়েছে বলে আদালতে জানিয়েছিল রাজ্য সরকার। তবে আদালত প্রশ্ন তুলেছে, ‘একজনও সংক্রামিত হবে না এই নিশ্চয়তা কি দিতে পারবেন? যদি একটি সংক্রমণের ঘটনাও হয় তবে আমরা কিন্তু আপনাদের দায়ী করব।’ রাজ্যকে জানিয়েছে আদালত। 

 

কোভিড পরিস্থিতিতে ছাত্রছাত্রীদের সংক্রণের আশঙ্কার কথা মাথায় রেখে কেরলে অফলাইনে একাদশ শ্রেণির পরীক্ষা নেওয়ার উদ্যোগে স্থগিতাদেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। সোমবার থেকে এই পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। পাশাপাশি কমবয়সী পড়ুয়াদের এত ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দেওয়ার আগে কী ধরনের বিজ্ঞানসম্মত পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে সেটাও রাজ্যের কাছে জানতে চেয়েছে আদালত। Justice AM Khanwilkar, Hrishikesh Roy, CT Ravikumar এর বেঞ্চের মন্তব্য, কেরলে রোজ ৩০ হাজার সংক্রমণের ঘটনা সামনে আসছে। উদ্বেগজনক পরিস্থিতি কেরলে। বর্তমান পরিস্থিতি এই কমবয়সীদের এভাবে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দেওয়া ঠিক নয়।

আইনজীবী এ রসুলসান গত ২৭শে অগস্ট এই ইস্যুতে নিম্ন আদালতে পরাজিত হয়েছিলেন। এরপর পরীক্ষার স্থগিতাদেশ চেয়ে তিনি উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। এদিকে ৬ই সেপ্টেম্বর থেকে ২৭শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। একাদশ শ্রেণির অফলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার আগে বোর্ড পরিস্থিতিটাকে সিরিয়াসলি নেয়নি বলে আবেদনকারীর তরফে দাবি করা হয়েছিল। এদিকে ১৩ই সেপ্টেম্বর পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত পরীক্ষা স্থগিত রাখার ব্যাপারেও আদালতের তরফে বলা হয়েছে।

এদিকে গত এপ্রিলে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির অফলাইনে পরীক্ষা সাফল্যের সঙ্গে নেওয়া হয়েছে বলে আদালতে জানিয়েছিল রাজ্য সরকার। তবে আদালত প্রশ্ন তুলেছে, একজনও সংক্রামিত হবে না এই নিশ্চয়তা কি দিতে পারবেন। যদি একটি সংক্রমণের ঘটনাও হয় তবে আমরা কিন্তু আপনাদের দায়ী করব। রাজ্যকে জানিয়েছে আদালত। 

|#+|

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন