বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পাকে বাঁধ নির্মাণ বন্ধ, বিস্ফোরণে ৯ ইঞ্জিনিয়ারের মৃত্যুর পর জানাল ‘বন্ধু’ চিন
খাদে পড়ে আছে বাসটি। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
খাদে পড়ে আছে বাসটি। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

পাকে বাঁধ নির্মাণ বন্ধ, বিস্ফোরণে ৯ ইঞ্জিনিয়ারের মৃত্যুর পর জানাল ‘বন্ধু’ চিন

  • পাকিস্তানে বাস-বিস্ফোরণে ন'জন চিনা ইঞ্জিনিয়ারের মৃত্যু হয়েছিল।

পাকিস্তানে বিস্ফোরণে ন'জন চিনা ইঞ্জিনিয়ারের মৃত্যু হয়েছিল। তারপরই উত্তর-পশ্চিম পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়ায় দাসু বাঁধের নির্মাণকাজ স্থগিত করে দিল চিনা সংস্থা।

রাশিয়ান সংবাদসংস্থা স্পুটনিকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ওই বাঁধ নির্মাণকারী সংস্থা সিজিজিসির তরফে বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, ‘গত ১৪ জুলাই যে বিস্ফোরণ হয়েছে, তার জেরে দাসু জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের নির্মাণকাজ স্থগিত রাখতে বাধ্য হচ্ছে সিজিজিসি দাসু এইচপিপি ম্যানেজমেন্ট। যে হামলার ফলে অনেকে হতাহত হয়েছেন।’

গত বুধবার উত্তর-পশ্চিম পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের উচ্চ কোহিস্তান জেলার দাসু এলাকায় বাসে বিস্ফোরণ হয়েছিল। সেখানে ৬০ বিলিয়ন ডলারের চিন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডর আওতায় দাসু বাঁধ তৈরির কাজে ইসলামাবাদকে সাহায্য করছিলেন চিনা ইঞ্জিনিয়ার এবং নির্মাণকর্মীরা। বিস্ফোরণে ন'জন চিনা ইঞ্জিনিয়ার-সহ ১৩ জনের মৃত্যু হয়। এক প্রত্যক্ষদর্শী বিবিসি উর্দুকে জানিয়েছিলেন, আচমকা একটা জোরালো শব্দ হয়। বাসটি শূন্যে পাক খেতে থাকে। তারপর তা খাদে পড়ে যায়। স্থানীয়রাই দুর্ঘটনাগ্রস্ত বাস থেকে উদ্ধার শুরু করেন। উচ্চ কোহিস্তান জেলার ডেপুটি কমিশনার মহম্মদ আরিফ জানিয়েছিলেন, দাসু বাঁধের নির্মাণের জন্য বাসে করে চিনা ইঞ্জিনিয়ার এবং নির্মাণকর্মীদের নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। সেই সময় বিস্ফোরণ হয়েছিল।

সেই বিস্ফোরণের পরই ‘বন্ধু’ পাকিস্তানের উপর চাপ বাড়াতে থাকে চিন। ‘সন্ত্রাসবাদী হামলায়’ অভিযুক্তদের শাস্তি দেওয়ার জন্য বেজিং থেকে ফোন আসে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের কাছে। তারপর ইসলামাবাদের তরফে দাবি করা হয়, বাস বিস্ফোরণে জড়িতদের শাস্তি দেওয়া হবে। তদন্তের জন্য ইতিমধ্যে উচ্চ-পর্যায়ের দল গঠন করা হয়েছে। পাশাপাশি পৃথকভাবে চিন থেকে একটি ১৫ সদস্যের দল এসেছে বলেও জানিয়েছে ইসলামাবাদ।

বন্ধ করুন