বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > তাইওয়ানের আকাশসীমায় ধরা পড়ল ২৮ চিনা যুদ্ধবিমান, ছড়ি ঘরানোর চেষ্টা?

তাইওয়ানের আকাশসীমায় ধরা পড়ল ২৮ চিনা যুদ্ধবিমান, ছড়ি ঘরানোর চেষ্টা?

ছবিটি প্রতীকী : টুইটার (Twitter)

 তাইওয়ানের সরকার জানায়, প্রণালীতে শান্তি বজায় রাখা অত্যন্ত জরুরি। আর তাতে বার বার বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে চিনের বিভিন্ন কার্যকলাপ।

তাইওয়ানে হঠাত্ই প্রবেশ করেছে চিনের ২৮টি যুদ্ধবিমান। মঙ্গলবার এমনটাই জানাল তাইওয়ানের এয়ার ডিফেন্স আইডেন্টিফিকেশান কেন্দ্র (ADIZ)। তাইওয়ানে এর আগে এত বড় অতর্কিত অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটেনি। এমনটাই অভিযোগ তুলেছে সেদেশের সরকার।

এ বিষয়ে এখনও মুখ খোলেনি বেজিং। এর আগে গত রবিবারই চিনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেয় তাইওয়ান। সেখানে বলা হয়, তাইওয়ানের প্রণালীতে শান্তি বজায় রাখা অত্যন্ত জরুরি। আর তাতে বার বার বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে চিনের বিভিন্ন কার্যকলাপ।

তবে এই প্রথম নয়। গত কয়েক মাস ধরেই একাধিকবার চিনের বিরুদ্ধে যুদ্ধবিমান দিয়ে চোখ রাঙানির অভিযোগ তুলেছে তাইওয়ান। মঙ্গলবার তাইওয়ান জানায়, মোট ২৮টি চিনা যুদ্ধবিমান হঠাত্ই অনুপ্রবেশ করে তাইওয়ানের আকাশে। ফাইটার জেট ছাড়াও ছিল পরমাণু হানায় সক্ষম যুদ্ধবিমান। ফলে, ব্যাপারটা মোটেও হালকাভাবে নিচ্ছে না সেদেশের সরকার।

চোদ্দটি জে-16, ৬টি জে-11 ফাইটার এবং H-6 বম্বার প্রবেশ করে তাইওয়ানের আকাষে। এই H-6 বম্বার পরমাণু বোমা হানায় সক্ষম। এর আগে চলতি বছরেই ১২ এপ্রিল তাইওয়ানের আকাশে অনুপ্রবেশ করে চিনের ২৫টি যুদ্ধবিমান। আকাশে চিনা বিমানের প্রবেশ ঘটতেই পাল্টা যুদ্ধবিমান উড়ান শুরু করে তাইওয়ান। মিসাইল সিস্টেমও প্রস্তুত করে ফেলা হয়।যদিও হামলা চালায়নি চিন। চিনা বিমানগুলি প্রাটাস দ্বীপপুঞ্জ ঘুরে তাইওয়ানের দক্ষিণ অংশের উপর দিয়ে বেরিয়ে যায়।

এই অনুপ্রবেশ নিয়ে চিন এখনও কিছু জানায়নি। তবে, এর আগে তাইওয়ানে বারবার অনুপ্রবেশের অভিযোগের মুখে সাফাই দেয় বেজিং। চিনা সরকার জানায়, তাইপেই ও ওয়াশিংটনের 'সংঘাত' এবং দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার্থেই এমন করা হয়েছে।

বন্ধ করুন