বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > দক্ষিণ চিন সাগরে ক্রমেই বাড়ছে উত্তেজনা, পশ্চিমা শক্তির সহায়তা চাইল তাইওয়ান
ছবিটি প্রতীকী
ছবিটি প্রতীকী

দক্ষিণ চিন সাগরে ক্রমেই বাড়ছে উত্তেজনা, পশ্চিমা শক্তির সহায়তা চাইল তাইওয়ান

  • গত শুক্রবার থেকে প্রতিদিন তাইওয়ানের আকাশ প্রতিরক্ষা অঞ্চলে ঢুকে পড়ছে চিনের বিমানবাহিনী৷ এই অবস্থায় সমমনা গণতান্ত্রিক দেশের সহায়তা চাইছে তাইওয়ান৷

গত শুক্রবার থেকে প্রতিদিন তাইওয়ানের আকাশ প্রতিরক্ষা অঞ্চলে ঢুকে পড়ছে চিনের বিমানবাহিনী৷ এই অবস্থায় সমমনা গণতান্ত্রিক দেশের সহায়তা চাইছে তাইওয়ান৷

তাইওয়ান সফররত ফ্রান্সের চার সেনেটর ও অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী টোনি অ্যাবটকে বৃহস্পতিবার এই কথা জানান তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইঙ-ওয়েন৷

তাইওয়ান উপত্যকায় বিরাজমান অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করায় ফ্রান্সের সেনেটরদের ধন্যবাদ জানান ওয়েন৷ ফ্রান্সের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী অ্যালা রিশার এই দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন৷

অবশ্য ফরাসি সেনেটের ও অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার সময় তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সরাসরি চিনের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডের উল্লেখ করেননি৷ ফরাসি সেনেটর অ্যালা রিশারও তার বক্তব্যে চিনের সঙ্গে তাইওয়ানের সামরিক উত্তেজনার কথা উল্লেখ করেননি৷ তবে অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী অ্যাবোট তাইওয়ানের গণতন্ত্রের প্রশংসা করে বলেন, ‘‘অবশ্য সবাই তাইওয়ানের উন্নতিতে খুশি নয়, এবং আমি জানি যে, বড় প্রতিবেশী দ্বারা প্রায় প্রতিদিনই তাইওয়ান চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ছে৷''

তাইওয়ানের সঙ্গে অনেক দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক থাকলেও ফ্রান্স কিংবা অস্ট্রেলিয়ার নেই৷

গত মার্চ মাসে ফ্রান্সের কয়েকজন সাংসদের তাইওয়ানের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করার খবরে প্যারিসে চিনের দূতাবাস সতর্কবাণী উচ্চারণ করেছিল৷ তবে ফ্রান্সের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কড়াভাবে জানিয়ে দিয়েছিল, ফরাসি সেনেটররা তাদের ইচ্ছামতো যে কারও সঙ্গে দেখা করতে পারেন৷

তাইওয়ানের আকাশে চিনের বিমান ঢুকে পড়ার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে কথা বলেছেন৷ এ বছরের মধ্যেই তারা ভার্চুয়ালি একটি শীর্ষ বৈঠক করবেন৷ তাইওয়ান ঐ বৈঠকের দিকে তাকিয়ে আছে বলে জানিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়৷

এদিকে চিনের সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট জানিয়েছে, তাইওয়ানের কাছে চিনের পূর্বাঞ্চলের এক ঘাঁটিতে অত্যাধুনিক জে-১৬ডি ফাইটার জেট জড়ো করা হয়েছে৷ স্বশাসনে থাকা তাইওয়ানকে নিজের অঞ্চল বলে দাবি করে চিন৷ তারা মনে করে দরকার হলে বল প্রয়োগ করে তাইওয়ানকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে৷ গতবছর প্রায় প্রতিদিনই তাইওয়ানের এয়ার ডিফেন্স জোনে বিমান পাঠিয়েছিল চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি পিএলএ৷

বন্ধ করুন