বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'আন্তর্জাতিক আইন মানব, তবে...', বিশ্বকে প্রথম বার্তা আখুন্দজাদার তালিবান সরকারের
তালিবান (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
তালিবান (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

'আন্তর্জাতিক আইন মানব, তবে...', বিশ্বকে প্রথম বার্তা আখুন্দজাদার তালিবান সরকারের

  • বার্তাতে বলা হয়, ‘আমরা আমাদের প্রতিবেশী এবং অন্যান্য সকল দেশের সাথে আলোচনার ভিত্তিতে সুস্থ সম্পর্ক চাই।’

আল-কায়দা প্রসঙ্গে চুপ থেকেই বিশ্বকে প্রথম 'বার্তা' দিল হাইবতুল্লাহ আখুন্দজাদা নেতৃত্বাধীন তালিবানি ক্যাবিনেট। প্রতিবেশী সব দেশের সঙ্গে সুস্থ সম্পর্ক স্থাপনের আগ্রহ প্রকাশ করল তালিবান। পাশাপাশি আফগানিস্তানের মাটি ব্যবহার করে অন্য কোনও দেশের উপর কোনও আক্রমণ চালানো হবে না বলেও ফের একবার বার্তা দেয় তালিবান।

প্রকাশিত বিবৃতিতে তালিবানের তরফে দাবি করা হয়, ইসলামি আইনের সাথে সাংঘাতে যায় না এমন সমস্ত আন্তর্জাতিক আইন এবং চুক্তি, রেজোলিউশন এবং প্রতিশ্রুতি মানার অঙ্গীকারবদ্ধ তারা। এই বিবৃতি সই করেন তালিবান প্রধান হাইবতুল্লাহ আখুন্দজাদা।

বার্তাতে বলা হয়, 'আমরা আমাদের প্রতিবেশী এবং অন্যান্য সকল দেশের সাথে পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও আলোচনার ভিত্তিতে শক্তিশালী এবং সুস্থ সম্পর্ক চাই। আফগানিস্তানের সর্বোচ্চ স্বার্থ ও সুবিধার ভিত্তিতে সেই দেশগুলোর সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক তৈরি হবে। আমাদের প্রতিবেশী দেশ এবং বিশ্বের কাছে আমাদের বার্তা হল যে আফগানিস্তানের মাটি অন্য কোনও দেশের নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলতে ব্যবহার করা হবে না। আমরা সবাইকে আশ্বস্ত করছি যে আফগানিস্তান থেকে কোনও উদ্বেগ নেই এবং আমরাও বাকি দেশের কাছ থেকে এই একই আশা করি।'

পাশাপাশি রাষ্ট্রসংঘের বিভিন্ন শাখা সহ আন্তর্জাতিক মাবাধিকার সংস্থা প্রসঙ্গে তালিবানের বক্তব্য, 'তাদের উপস্থিতি এই দেশের জন্য প্রয়োজনীয়। তাঁরা শান্তিতে তাদের কাজ চালিয়ে যেতে পারেন। তাঁদের সুরক্ষা সুনিশ্চিত করতে আমরা সবকিছু করব। তাঁরা এখানে কোনও সমস্যায় পড়বেন না। আমাদের সাথে শক্তিশালী এবং সৌহার্দ্যপূর্ণ রাজনৈতিক, কূটনৈতিক এবং ভালো সম্পর্ক গড়ে তুলতে এবং আমাদের সাথে সহযোগিতা করার আহ্বান জানাচ্ছি সবাইকে।'

বন্ধ করুন