বাড়ি > ঘরে বাইরে > লাদাখ বিতর্কে চিনের সঙ্গে আলোচনা চলছে, ভারতের সম্মানে আঘাত হানতে দেওয়া হবে না : রাজনাথ
প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

লাদাখ বিতর্কে চিনের সঙ্গে আলোচনা চলছে, ভারতের সম্মানে আঘাত হানতে দেওয়া হবে না : রাজনাথ

সীমান্ত বিতর্ক নিয়ে আমেরিকার মধ্যস্থতা প্রস্তাবে কড়া জবাব দিয়েছেন রাজনাথ।

লাদাখে সীমান্ত বিবাদ নিয়ে সামরিক এবং কূটনৈতিক স্তরে আলোচনা চালাচ্ছে ভারত এবং চিন। তবে কোনওভাবেই ভারতের সম্মান-মর্যাদায় আঘাত লাগতে দেবে না কেন্দ্র। এমনই আশ্বাস দিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

একটি বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, 'ভারতের নীতি একেবারে পরিষ্কার যে সব প্রতিবেশীর সঙ্গে ভালো সম্পর্ক রাখা হবে। এটা দীর্ঘদিনের প্রয়াস। তবে কখনও কখনও চিনের সঙ্গে (এরকম) পরিস্থিতি উদ্ভূত হয় এবং এরকম ঘটনা হয়।'

পূর্ব লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর সীমান্ত বিতর্কে বেজিং কোনওভাবে ভারতের উপর একতরফা চাপ তৈরি করতে পারে কিনা সেই প্রশ্নের রাজনাথ সাফ বলেন, ‘আপনি এটা ভাবতেও পারেন না। আমি দেশকে আশ্বস্ত করতে চাই যে কোনও পরিস্থিতিতে আমরা ভারতের সম্মানে আঘাত হানতে দেব না।’

২০১৭ সালে ডোকলাম বিবাদের প্রসঙ্গ উত্থাপন করে তিনি জানান, সেই সময়ও পরিস্থিতি ‘অত্যন্ত উত্তেজনাকর’ ছিল। কিন্তু নয়াদিল্লি পিছু হটেনি। বরং আলোচনার মাধ্যমে সেই বিতর্ক মিটিয়ে নেওয়া হয়েছিল। এবারও কূটনৈতিক স্তরে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করা হবে বলে জানান রাজনাথ। তিনি বলেন, ‘যাতে উত্তেজনা না বাড়ে, তা নিশ্চিত করা ভারতের লক্ষ্য। সামরিক এবং কূটনৈতিক স্তরে আলোচনার মাধ্যমে এটা (লাদাখে সীমান্ত বিতর্ক) মিটিয়ে নেওয়া হবে। সামরিক এবং কূটনৈতিক স্তরে দু'দেশের মধ্যে আলোচনা চলছে।’

পাশাপাশি, ভারত ও চিনের মধ্যে দ্বন্দ্ব নিয়ে আমেরিকা যে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছে, তা নিয়েও মুখ খোলেন রাজনাথ। তিনি জানান, বিষয়টি নিয়ে আমেরিকার প্রতিরক্ষা সচিব মার্ক টি এসপারের সঙ্গে শুক্রবার ফোনে কথা হয়েছে। আলোচনার মাধ্যমে ‘সমস্যা’ সমাধানের জন্য নয়াদিল্লি এবং বেজিংয়ের কাছে উপযুক্ত ব্যবস্থা আছে বলে ওয়াশিংটনকে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

বন্ধ করুন