বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Taslima Nasreen on Gyanvapi Controversy: ‘১০ কক্ষের বড় একটি প্রার্থনা স্থল…’, জ্ঞানবাপী বিতর্কের মাঝে ‘পরামর্শ’ তসলিমার
তসলিমা নাসরিন, লেখিকা। (ফেসবুক)

Taslima Nasreen on Gyanvapi Controversy: ‘১০ কক্ষের বড় একটি প্রার্থনা স্থল…’, জ্ঞানবাপী বিতর্কের মাঝে ‘পরামর্শ’ তসলিমার

  • Taslima Nasreen on Gyanvapi Controversy: জ্ঞানবাপী মসজিদের ওজুখানায় পাথর মিলেছে। এক পক্ষের দাবি, সেই পাথর শিবলিঙ্গ। অপরদিকে মসদিজ পরিচালনা কমিটির দাবি, সেই পাথর আদতে ওজুখানার ফোয়ারা। এই আবহে লেখক তসলিমার পরামর্শ, সব ধর্মের জন্য একটি বড় প্রার্থনা স্থল তৈরি হোক।

বিভিন্ন সময়ে ধর্মীয় বা সংবেদনশীল ইস্যুতে বিতর্কিত মন্তব্য করে থাকেন লেখক তসলিমা নাসরিন। এবার জ্ঞানবাপী মসজিদ নিয়ে চলতে থাকা বিতর্ক নিয়ে মুখ খুললেন তিনি। উল্লেখ্য, জ্ঞানবাপী মসজিদের ওজুখানায় পাথর মিলেছে। এক পক্ষের দাবি, সেই পাথর শিবলিঙ্গ। অপরদিকে মসদিজ পরিচালনা কমিটির দাবি, সেই পাথর আদতে ওজুখানার ফোয়ারা। এই আবহে বাঙালি লেখক তসলিমার পরামর্শ, সব ধর্মের জন্য একটি বড় প্রার্থনা স্থল তৈরি হোক।

একটি টুইটে তসলিমা লেখেন, ‘সবার জন্য একটি বড় প্রার্থনা ঘর থাকলে ভালো। প্রার্থনা গৃহে দশটি কক্ষ, হিন্দুদের জন্য একটি (সকল বর্ণের জন্য), একটি মুসলিম (সকল সম্প্রদায়ের জন্য), একটি খ্রিস্টান (সকল সম্প্রদায়), একটি বৌদ্ধ, একটি শিখ, একটি ইহুদি, একটি জৈনদের জন্য, একটি পার্সিদের জন্য। পাশাপাশি লাইব্রেরি, উঠান, বারান্দা, টয়লেট, খেলার ঘর থাকা উচিত সেখানে।’

প্রসঙ্গত, গতকালই বারাণসী আদালতের নির্দেশে সিল করা হয় জ্ঞানবাপী মসজিদের ওজুখানা। সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েও আঞ্জুমানে ইন্তেজামিয়া মসজিদ কমিটি আবেদন দায়ের করবে বলে জানা গিয়েছে। উল্লেখ্য, আজকে তৃতীয় দিনের সমীক্ষা চলাকালীন মসজিদের ওজুখানায় একটি পাছর মেলে। এই আবহে এক আইনজীবী সেই পাথরকে শিবলিঙ্গ দাবি করে আদালতের দ্বারস্থ হন এবং জায়গাটিকে সিল করার আবেদন জানান। সেই প্রেক্ষিতে ওজুখানা সিলের নির্দেশও দেয় বারাণসী আদালত। তবে মুসলিম পক্ষের দাবি, যে পাথর মিলেছে, তা শিবলিঙ্গ নয় বরং ফোয়ারা। এই পরিস্থিতিতে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এদিকে জ্ঞানবাপী সমীক্ষার রিপোর্ট জমার জন্য আরও অতিরিক্ত দুই দিন চাইল কোর্ট কমিশন।

বন্ধ করুন