বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Teacher Killed In Kashmir: ফের কাশ্মীরে রক্ত ঝরল নিরীহর, স্কুলে ঢুকে হামলা জঙ্গিদের, মৃত হিন্দু শিক্ষিকা
মৃত কাশ্মীরি শিক্ষিকা রজনী বালা

Teacher Killed In Kashmir: ফের কাশ্মীরে রক্ত ঝরল নিরীহর, স্কুলে ঢুকে হামলা জঙ্গিদের, মৃত হিন্দু শিক্ষিকা

  • Teacher Killed In Kashmir: কুলগামের গোপালপোরা এলাকায় সন্ত্রাসীরা রজনী বালার উপর গুলি চালালে তিনি গুরুতর ভাবে জখম হন। সেখানের একটি স্কুলে শিক্ষিকা হিসাবে নিযুক্ত ছিলেন রজনী। রজনী গুরুতর জখম হলে তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে নিয়ে গেলে তিনি মারা যান।

ফের একবার কাশ্মীরে জঙ্গিদের নিশানায় সেরাজ্যের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়। আজকে কুলগামে জঙ্গিদের গুলিতে প্রাণ হারান একজন হিন্দু শিক্ষিকা। মৃত শিক্ষিকার নাম রজনী বালা। ৩৬ বছর বয়সি রজনী জম্মুর সাম্বা জেলার বাসিন্দা বলে জানায় কাশ্মীর জোন পুলিশ। এর আগেও বেশ কয়েক দফায় কাশ্মীরে পণ্ডিতদের উপর হামলা চলেছে সম্প্রতি। রাহুল ভট নামক এক যুবককে সরকারি অফিসে ঢুকে গুলি করে খুন করেছিল জঙ্গিরা। সেই ঘটনার পর উত্তাস হয়ে উঠেছিল উপত্যকা। এবার ফের এই একই ধরনের ঘটনা ঘটল।

কুলগামের গোপালপোরা এলাকায় সন্ত্রাসীরা রজনী বালার উপর গুলি চালালে তিনি গুরুতর ভাবে জখম হন। সেখানের একটি স্কুলে শিক্ষিকা হিসাবে নিযুক্ত ছিলেন রজনী। রজনী গুরুতর জখম হলে তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে নিয়ে গেলে তিনি মারা যান। পুলিশ বলেছে যে এই ভয়ঙ্কর অপরাধের সাথে জড়িত সন্ত্রাসীদের শীঘ্রই চিহ্নিত করা হবে এবং নিরপেক্ষ ভাবে শাস্তি দেওয়া হবে। রজনীর স্বামী রাজও কাশ্মীরের স্কুল শিক্ষক। রজনী বিগত পাঁচ বছর ধরে কুলগাম শহরে থাকতেন। এবং প্রতিদিন ১০ কিমি দূর গোপোলাপোরায় অবস্থিত স্কুলে গিয়ে শিশুদের পড়াতেন।

ন্যাশনাল কনফারেন্সের সহ-সভাপতি ওমর আবদুল্লাহ শিক্ষিকার ওপর এই হামলাকে ‘ঘৃণ্য’ কাজ বলে অভিহিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘রজনী জম্মু অঞ্চলের সাম্বা জেলার বাসিন্দা ছিলেন। দক্ষিণ কাশ্মীরের কুলগাম এলাকায় একজন সরকারি স্কুল শিক্ষিকা হিসেবে কর্মরত ছিলেন তিনি। তিনি এই ঘৃণ্য হামলার লক্ষ্যবস্তু হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন। তাঁর স্বামী রাজ কুমার এবং তাঁর পরিবারের বাকিদের প্রতি আমার সহানুভূতি রইল। এই সহিংসতায় অপূরণীয়ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হল আরও একটি বাড়ি।’ ওমর আরও বলেন, ‘নিরস্ত্র সাধআরণ মানুষের উপর চলতে থাকা সাম্প্রতিক হামলার দীর্ঘ তালিকায় এই ঘটনাটিরও সংযোজন হল। এই আবহে সরকারের আশ্বাসের মতোই ফাঁপা হয়ে আসছে নিন্দা ও সমবেদনার শব্দগুলো। এতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে না। মৃতের আত্মার শান্তি কামনা করি।’

বন্ধ করুন