বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Malad Lift accident: চলন্ত লিফ্টের ভিতরে পা, বাইরে দেহের বাকি অংশ! হাড়হিম করা কাণ্ড স্কুলে, মৃত শিক্ষিকা
ভয়াবহ দুর্ঘটনার শিকার জিনালের মৃত্যু।   (Getty Images/iStockphoto/ Representational image) (HT_PRINT)

Malad Lift accident: চলন্ত লিফ্টের ভিতরে পা, বাইরে দেহের বাকি অংশ! হাড়হিম করা কাণ্ড স্কুলে, মৃত শিক্ষিকা

  • লিফ্ট দুর্ঘটনাগ্রস্ত অবস্থায়, ওই শিক্ষিকার পা লিফ্টের ভিতরে থেকে যায় আর দেহের বাকি অংশ লিফ্টের বাইরে। এই অবস্থায় লিফ্ট চলতে শুরু করে। প্রবল যন্ত্রণায় ছটফট করতে করতে চিৎকার করেন তিনি। মুহূর্তে ছুটে আসেন আশপাশে যাঁরা ছিলেন। তবে কেউই কিছু করতে পারেননি তখন। এরপর আসে পুলিশ, দমকল।

এই মর্মান্তিক ঘটনা মহারাষ্ট্রের মালাদের। সেখানে এক ২৬ বছর বয়সী শিক্ষিকার মৃত্যু ঘিরে কার্যত চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনা শুক্রবার দুপুরের। সেদিন দুপুর ১ থেকে ২ টোর মধ্যে মুম্বইয়ের মালাদের সেন্ট মেরি ইংলিশ স্কুলে এক মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। স্কুলের মধ্যে লিফ্ট দুর্ঘটনায় জিনাল ফার্নান্ডেজ নামের এক শিক্ষিকার মৃত্যু হয়েছে।

লিফ্ট দুর্ঘটনাগ্রস্ত অবস্থায়, ওই শিক্ষিকার পা লিফ্টের ভিতরে থেকে যায় আর দেহের বাকি অংশ লিফ্টের বাইরে। এই অবস্থায় লিফ্ট চলতে শুরু করে। প্রবল যন্ত্রণায় ছটফট করতে করতে চিৎকার করেন তিনি। মুহূর্তে ছুটে আসেন আশপাশে যাঁরা ছিলেন। তবে কেউই কিছু করতে পারেননি তখন। এরপর আসে পুলিশ, দমকল। শেষে তাঁকে উদ্ধার করেন দমকল ও পুলিসের সদস্যরা। জিনালকে সেই অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, জিনালের দেহে তখন ভয়াবহ আঘাতের দাগ। হাসপাতালে তাঁকে ভর্তি করা হলে তাঁকে মৃত ঘোষণা করা হয়। উল্লেখ্য, জিনালের স্বামী থাকেন বিদেশে। সদ্য তিনি ফিরেছেন বাড়ি। জিনালের সঙ্গে তাঁর ছুটি কাটানোর কথা ছিল। তবে ভাগ্যের করু পরিহাসে তা মর্মান্তিক পরিণতিতে শেষ হল। বাড়ির কোনদিকে পোঁতা উচিত কলাগাছ? আর্থিক স্বচ্ছ্বলতায় কিছু গাছ নিয়ে বাস্তুটিপস

স্কুলের ষষ্ঠ ফ্লোর থেকে স্টাফরুমে যাওয়ার সময় এই ভয়াবহ কাণ্ড ঘটে। পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনায় দুর্ঘটনার একটি কেস দায়ের হবে তাদের তরফ থেকে। বিষয়টি নিয়ে তাঁরা স্কুল ম্যানেজমেন্টের বক্তব্যও রেকর্ড করবেন বলে জানিয়েছেন পুলিশ অফিসাররা। প্রসঙ্গত, এই বছরের জুন মাসে ওই স্কুলে অ্যাসিসটেন্ট টিচার হিসাবে যোগ দেন জিনাল। এরপর সেপ্টেম্বরে এই ঘটনা নিয়ে অনেকেই স্কুলের বিরুদ্ধে আঙুল তুলছেন।

 

 

 

 

বন্ধ করুন